TrickBlogBD.com

Gain and Give knowledge

Health Tips

গ্যাস্ট্রিক হলে করনীয় ও গ্যাস্ট্রিক সমস্যা দূর করার উপায়

গ্যাস্ট্রিক হলে করনীয় কি? গ্যাস্ট্রিকের লক্ষন কি? গ্যাস্ট্রিক দূর করার উপায় কি? এমন প্রশ্নের উত্তর অনেকেই খোঁজেন। আজ আপনাদের সাথে গ্যাস্ট্রিক সমস্যার কিছু ঘরোয়া সমাধান নিয়ে আলোচনা করবো। যেকোনো স্বাস্থ্য পরামর্শ পেতে ডাক্তারের পরামর্শই সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য।

গ্যাস্ট্রিক হলে করনীয়
গ্যাস্ট্রিক হলে করনীয়

গ্যাস্ট্রিকের লক্ষন কি?

গ্যাস্ট্রিক বা গ্যাসের সমস্যার কিছু লক্ষণ রয়েছে। সাধারণত বুকের উপরের দিকে হালকা ব্যাথা হয়। আবার কোনো কোনো সময় তীব্র ব্যাথাও দেখা যায়, বদ হজম হয়। বুক জ্বালা পোড়া করে। আবার মুখ থেকে দুর্গন্ধ বের হয়। কারো কারো পেটে ভুর ভুর আওয়াজ হয়। একে গ্যাস্ট্রিক বা আলসার বলা হয়ে থাকে।

চিকিৎসা বিজ্ঞানে একে পেপটিক আলসার বলে। তবে কোনটা গ্যাস্ট্রিকের ব্যাথা আর কোনটা অন্য ব্যাথা সেটা বুঝতে হলে ডাক্তারের কাছে যেতে হবে। গ্যাস্ট্রিকের লক্ষণ দেখলেই সেটা গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা, এমনটা ভাবা কখনোই ঠিক নয়।

গ্যাস্ট্রিক কেন হয়?

বয়সভেদে গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা বিভিন্ন রকম হতে পারে। নারীদের ক্ষেত্রে গ্যাস্ট্রিকের সমস্যার একটি বড় কারণ হলো গলব্লাডারে পাথর। আমরা অনেক সময় দেখি যে গলব্লাডারে পাথর ছেলেদেরও হয়ে থাকে, তবে নারীদের ক্ষেত্রে এই সমস্যার প্রবণতা অনেক বেশি।

এই সমস্যা হলে প্রাথমিক অবস্থায় একটু বমি বমি ভাব দেখা যায়, খেতে ইচ্ছে করে না, অরুচি ইত্যাদি সমস্যা হয়ে থাকে। তাছাড়া আমাদের দেশে গ্যাস্ট্রিকের সমস্যার প্রধান কারণ হচ্ছে মানুষের খাদ্যাভ্যাস ও খাবার অনিয়ম

আমরা নিয়মিত সময়মতো খাবার খাইনা। দেখা যায় রাতে খাবার খাওয়ার পর সকালে আমরা অনেক দেরিতে ঘুম থেকে উঠি। নাস্তা খেতে খেতে ১১ টা বা ১২ টা বেজে যায়। কেউ কেউ তো একেবারে দুপুরের খাবার খেয়ে নেয়।

এতে করে খাবার সময়ের মাঝে অনেক বড় ব্যবধান হয়ে যায়। এর ফলে পেটে গ্যাসের সমস্যা দেখা দেয়। আবার আমরা অনেকেই অনেক রাত করে খাবার খাই। এটিও গ্যাস্ট্রিক সমস্যার বড় কারণ।

পেটে গ্যাস হলে কি কি সমস্যা হতে পারে

ইতোমধ্যেই বলেছি, পেটে গ্যাস হলে কি কি সমস্যা হতে পারে। আবারো বলছি। সাধারণত বুকের উপরের দিকে হালকা ব্যাথা হয়। আবার কোনো কোনো সময় তীব্র ব্যাথাও দেখা যায়, বদ হজম হয়। বুক জ্বালা পোড়া করে। আবার মুখ থেকে দুর্গন্ধ বের হয়। কারো কারো পেটে ভুর ভুর আওয়াজ হয়।

গ্যাস্ট্রিক দূর করার প্রাকৃতিক উপায় ও করণীয়

বিভিন্ন উপায়ে গ্যাস্ট্রিক দূর করা যায়। গ্যাস্ট্রিক দূর করার প্রাকৃতিক উপায় ও কিছু করণীয় নিচে তুলে ধরা হলো।

আরো পড়ুন……

গ্যাস্ট্রিক হলে কি খাব?

অনেকেরই মনে প্রশ্ন থাকে যে গ্যাস্ট্রিক হলে কি খাব? গ্যাস্ট্রিক সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে হলে অবশ্যই সময় মতো খাবার খেতে হবে। ভাজা পোড়া খাবার খাওয়া বাদ দিতে হবে। তাছাড়া কিছু খাবার খাওয়ার আলাদা অভ্যাস করতে হবে। যা যা খেতে হবে নিচে দেওয়া হলো।

লেবুর রস

মাঝারি আকারের একটি লেবুর রসের সাথে ১ কাপ পরিমাণ পানি ও আধা টেবিল চাপচ বেকিং সোডা মিশিয়ে নিন। ভাল করে নেড়ে মিশ্রণ তৈরি করে খান। নিয়মিত খেলে গ্যাস্ট্রিকের সমস্যায় আরাম পাবেন।

গ্যাস্ট্রিকের ব্যাথায় দ্রুত উপকার পেতে চাইলে গরম পানির সাথে লেবুর রস মিশিয়ে খেয়ে নিন। দ্রুত উপকার পাবেন ইনশাআল্লাহ।

প্রচুর পরিমাণে পানি পান করুন

প্রচুর পরিমানে পানি পান করলে গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা কনে যায়। পানি প্বটে গ্যাস জতে দেয়না। তাই প্রতিদিন ৬-৮ লিটার পানি পান করার চেষ্টা করুন।

আদা খান

খাবার খাওয়ার পর কাচা আদা খেলে গ্যাস্ট্রিকের সনস্যা অনেকাংশে কমে যায়। এটি খুবই কার্যকরী ও সহজলভ্য ঘরোয়া উপায়। প্রতিদিন এই অভ্যাসটি করুন। যারা কাঁচা আদা খেতে পারেন না, তারা তরকারি রান্নার সময় আদা বেশি করে দিবেন। এতে গ্যাস্ট্রিকের সমস্যার উপকার পাবেন।

আরো পড়ুনঃ ঘাড় ব্যাথার কারণ ও ১৪ টি সমাধান

ডাবের পানি খান

প্রতিদিন ডাবের পানি খাওয়ার চেষ্টা করুন। ডাবের পানি হজম ক্ষমতা বৃদ্ধি করে। একই সাথে এটি গ্যাসের সমস্যাও দূর করে।

তথ্যসূত্রঃ প্রথম আলো, এনটিভি, প্রিয় ডট কম

আরো স্বাস্থ্য বিষয়ক টিপস পেতে প্রতিদিন ভিজিট করুন ট্রিক ব্লগ বিডি।

Spread the love

LEAVE A RESPONSE

Your email address will not be published. Required fields are marked *

হাবিবুর রহমান একজন কন্টেন্ট রাইটার। একই সাথে খুটিনাটি কিছু এসইও এর কাজ করেন। ট্রিক ব্লগ বিডিতে সিইও হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।