TrickBlogBD.com

Gain and Give knowledge

Board challenge
Education guideline

বোর্ড চ্যালেঞ্জ করার নিয়ম |খাতা পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন

এক নজরে সম্পূর্ণ পোস্ট

বোর্ড চ্যালেঞ্জ করাবো কিভাবে

বোর্ড চ্যালেঞ্জ করার নিয়মকানুন অনেকেই জানেন না। অনেকরই প্রশ্ন থাকে “বোর্ড চ্যালেঞ্জকরবো কিভাবে?”। আজকে আপনাদের বোর্ড চ্যালেঞ্জ বা খাতা পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন করার নিয়ম শিখাবো। আপনি এই পোস্টের মাধ্যমে বোর্ড চ্যালেঞ্জের পুরো বিষয় জানতে পারবেন। ফলাফল দেখার নিয়ম

যারা নিজে নিজে বোর্ড চ্যালেঞ্জ করতে পারেন না বা যাদের টেলিটক সিম নেই আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন

কয় তারিখ পর্যন্ত এসএসসি বোর্ড চ্যালেঞ্জ করা যাবে?

০১/০৬/২০২০ ইং তারিখ থেকে ০৭/০৬/২০২০ ইং তারিখের মধ্যে খাতা পুনঃনিরীক্ষণের জন্য আবেদন করা যাবে। ০৭/০৬/২০২০ ইং রাত ১১ টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার বোর্ড চ্যালেঞ্জের আবেদন করা যাবে।

বোর্ড চ্যালেঞ্জ করলে কি হয়

প্রথমেই আসি বোর্ড চ্যালেঞ্জ কি বা খাতা পুনঃনিরীক্ষণ কি? বোর্ড চ্যালেঞ্জ করলে কি হয়? ধরুন আপনি কোনো একটি বিষয়ে পরীক্ষা খুব ভালো দিয়েছেন। আপনার বিশ্বাস আপনি ৮০+ নম্বর বা A+ পাবেন। কিন্তু দেখা গেলো আপনি কাংখিত নম্বর পাননি। অথবা ফেল করেছেন।

স্বভাবতই আপনার মনে রাগ ক্ষোভ জমা হবে। মনে মনে খাতা মূল্যায়নকারীদের গালিগালাজও করতে পারেন (যদিও সবাই করেনা)। হয়তো ভাবছেন তারা ইচ্ছাকৃতভাবে আপনাকে ফেল দিয়েছে।

কিন্তু না। উত্তরপত্র মূল্যায়নকারীরা কখনোই এমনটি করেন না। হ্যাঁ, তাদের মূল্যায়নে ত্রুটি থাকতে পারে। কারণ, মানুষ মাত্রই ভূল। সবারই অনিচ্ছাকৃত ভূল থাকতে পারে।

এতবড় পাবলিক পরীক্ষা যেখানে লাখ লাখ শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে। সেখানে তো টুকিটাকি ভুল থাকতেই পারে। কিন্তু আপনি যে বঞ্চিত হলেন? তার কি হবে?

এর জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয় খুব সুন্দর একটি পদ্ধতি এক্সালু করেছে। একে বলে বোর্ড চ্যালেঞ্জ বা খাতা পুনঃনিরীক্ষণ।

অর্থাৎ আপনি আপনার খাতা দেখতে পারবেন না ঠিকই কিন্তু আপনার খাতাটি বিজ্ঞ নীরিক্ষণকারী দ্বারা পুনরায় নিরীক্ষণ করার আবেদন করতে পারবেন। একটি কথা খেয়াল রাখবেন, এটি পুনঃনিরীক্ষণ কিন্তু পুনঃমূল্যায়ন নয়।

এর মানে হচ্ছে, আপনার খাতার প্রত্যেকটি প্রশ্নে ঠিকভাবে নম্বর দেওয়া হয়েছে কিনা? বা নম্বরের হিসাব অর্থাৎ যোগ করা ঠিক আছে কিনা। এগুলা দেখা হবে। কিন্তু খাতাটি পুনরায় কাটা হবেনা।

তাদের কোনো ভুল থাকলে ফলাফল সংশোধন করে পুনরায় ফল প্রকাশ করা হয়।

পরীক্ষার খাতা
পরীক্ষার খাতা

বোর্ড চ্যালেঞ্জ করলে খাতা কি পুনরায় কাটা হয়

না, বোর্ড চ্যালেঞ্জ করলে খাতা পুনরায় কাটা হয়না। শুধুমাত্র নম্বরের হিসাব ও সকল প্রশ্নে ঠিকভাবে নম্বর প্রদান করা হয়েছে কিনা সেটা দেখা হয়।

বোর্ড চ্যালেঞ্জ বা খাতা পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন করতে কি কি লাগে?

যেকোনো পাবলিক পরীক্ষার বোর্ড চ্যালেঞ্জ করতে করতে আপনার একটি টেলিটক প্রিপেইড সিম লাগবে। সাথে আবেদনকারীর রোল নম্বর, ফোন নম্বর, যে বিষয়ের জন্য আবেদন করবে সে বিষয়ের কোড।

আপনার টেলিটক সিম না থাকলে আমাদের মাধ্যমেও বোর্ড চ্যালেঞ্জ করে নিতে পারেন

বোর্ড চ্যালেঞ্জ কখন করা যায়?

ফলাফল প্রকাশের পরবর্তী দিন থেকেই বোর্ড চ্যালেঞ্জ বা পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন করা যায়। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের বেধে দেওয়া সময়ের মধ্যেই এই আবেদন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হয়।

বোর্ড চ্যালেঞ্জ করার নিয়ম

নিচে এক এক করে সকল পাবলিক পরীক্ষার বোর্ড চ্যালেঞ্জ এর নিয়ম কানুন দেওয়া হলো।

পিএসসি (PSC) বোর্ড চ্যালেঞ্জ

পিএসসি (psc) বা এবতেদায়ী পরীক্ষার খাতা পুনঃনিরীক্ষণ বা বোর্ড চ্যালেঞ্জের নিয়ম কানুন নিচে দেওয়া হলো।

DPRSC <Space> Student ID <space> Subject code তারপর SMS টি পাঠিয়ে দিন 16222 নম্বরে।

ফিরতি এসএমএস এ ফি উল্লেখপূর্বক একটি পিন কোড প্রদান করা হবে। আবেদন নিশ্চিত করতে নিচের মতো করে আবার এসএমএস সেন্ড করুন।

DPRSC<space>YES<space>Pin number<space>Contact number লিখে ১৬২২২ নম্বরে সেন্ড করুন।

বিঃদ্রঃ Contact number টিতে ফলাফল জানানও হবে।

পিএসসি (PSC) বোর্ড চ্যালেঞ্জ
পিএসসি (PSC) বোর্ড চ্যালেঞ্জ

এসএসসি (SSC) বোর্ড চ্যালেঞ্জ করার নিয়ম

এসএসসি (SSC) পরীক্ষার বোর্ড চ্যালেঞ্জ বা Rescrutiny করার নিয়ম নিচে দেওয়া হলো।

RSC<space>1st three letter of board<space>Rool number<space>Subject code লিখে পাঠিয়ে দিন ১৬২২২ নম্বরে।

ফিরতি এসএমএস এ ফি উল্লেখপূর্বক একটি পিন কোড প্রদান করা হবে। আবেদন নিশ্চিত করতে নিচের মতো করে আবার এসএমএস সেন্ড করুন।

RSC<space>YES<space>Pin number<space>Contact number লিখে ১৬২২২ নম্বরে সেন্ড করুন।

বিঃদ্রঃ Contact number টিতে ফলাফল জানানো হবে।

এসএসসি (SSC) বোর্ড চ্যালেঞ্জ করার নিয়ম | ফলাফল পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন
এসএসসি (SSC) বোর্ড চ্যালেঞ্জ করার নিয়ম

জেএসসি (JSC) বোর্ড চ্যালেঞ্জ করার নিয়ম

জেএসসি (JSC) পরীক্ষার ফলাফল পুনঃনিরীক্ষণ বা বোর্ড চ্যালেঞ্জ এর নিয়ম নিচে দেওয়া হলো।

বিঃদ্রঃ এসএসসি পরীক্ষার জন্য দেওয়া নিয়ম অনুসরণ করুন

জেএসসি (JSC) বোর্ড চ্যালেঞ্জ করার নিয়ম | ফলাফল পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন
জেএসসি (JSC) বোর্ড চ্যালেঞ্জ করার নিয়ম

এইচএসসি (HSC) বোর্ড চ্যালেঞ্জ করার নিয়ম

এইচএসসি (HSC) বোর্ড চ্যালেঞ্জ করার নিয়ম কানুন নিচে দেওয়া হলো।

বিঃদ্রঃ এসএসসির জন্য দেওয়া নিয়মটি অনুসরণ করুন

এইচএসসি (HSC) বোর্ড চ্যালেঞ্জ করার নিয়ম (ফলাফল পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন)
এইচএসসি (HSC) বোর্ড চ্যালেঞ্জ করার নিয়ম

বোর্ড চ্যালেঞ্জ রেজাল্ট ২০২০ কবে দিবে

বোর্ড চ্যালেঞ্জ রেজাল্ট ২০২০ কবে দিবে? এই প্রশ্নের উত্তর সরাসরি দেওয়া সম্ভব নয়। রেজাল্ট প্রকাশের কয়েকদিন আগে, শিক্ষা বোর্ড থেকে বোর্ড চ্যালেঞ্জের ফলাফল প্রকাশের তারিখ ঘোষণা করা হয়। সাধারণত বোর্ড চ্যালেঞ্জ করার প্রায় একমাস পরে রেজাল্ট প্রকাশিত হয়।

বোর্ড চ্যালেঞ্জ রেজাল্ট কোথায় পাব?

বোর্ড চ্যালেঞ্জ রেজাল্ট পাওয়া খুব সহজ। আপনি খাতা পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন করার সময় যেই নম্বর দিয়েছিলেন সেই নম্বরে ম্যাসেজ করে রেজাল্ট জানিয়ে দেওয়া হবে।

তাছাড়া প্রত্যেকটি শিক্ষা বোর্ডের ওয়েবসাইটে যাদের ফলাফল পরিবর্তিত হয়েছে তাদের তালিকা প্রকাশ করা হয়।

মনে রাখবেন, যাদের ফলাফল পরিবর্তন হয়নি তাদের রেজাল্ট ওয়েবসাইটে আসবেনা। প্রত্যেকটি বোর্ডের ওয়েবসাইটের তালিকা পেতে এখানে ক্লিক করুন

সার্ভার সমস্যা হলে মোবাইলে ফলাফলের এসএমএস পেতে কিছুটা সময় লাগতে পারে। মাঝেমধ্যে এক-দুই দিন পর ম্যাসেজ আসতে পারে। রেজাল্ট অপরিবর্তিত থাকলেও মোবাইলে ম্যাসেজ পাবেন।

বোর্ড চ্যালেঞ্জ করলে কি নম্বর কমে

অনেকের মনেই প্রশ্ন থাকে যে বোর্ড চ্যালেঞ্জ করলে কি নম্বর কমে? এই প্রশ্নের উত্তর হচ্ছে না। এখন পর্যন্ত আমরা এমন কাউকে পাইনি যাদের বোর্ড চ্যালেঞ্জ করার পর নম্বর কমেছে।

অর্থাৎ আপনার নম্বর বাড়ার হলে বাড়বে। আর না হয় আগে যেই নম্বর পেয়েছে সেটি থাকবে। আপনার এই বিষয়ে কোনো অভিজ্ঞতা থাকলে কমেন্ট করতে পারেন।

আশা করি, “বোর্ড চ্যালেঞ্জ করলে কি নম্বর কমে?” এই প্রশ্নের উত্তরটি পেয়েছেন।

ট্রিক ব্লগ বিডি থেকে বোর্ড চ্যালেঞ্জ

যাদের টেলিটক সিম নেই বা নিজে পারবেন না। তারা ট্রিক ব্লগ বিডি থেকে বোর্ড চ্যালেঞ্জ করিয়ে নিতে পারেন। এজন্য প্রত্যেক বিষয়ের জন্য নির্ধারিত ফি থেকে কিছুটা বাড়তি টাকা পরিশোধ করতে হবে। বোর্ড চ্যালেঞ্জ করতে যোগাযোগ করুন

কোন পরীক্ষার বোর্ড চ্যালেঞ্জ ফি কত?

আমরা নির্ধারিত ফি থেকে একটু বেশি ফি নিয়ে থাকি। বাড়তি ফি হচ্ছে আমাদের লাভ/কমিশন। বোর্ড চ্যালেঞ্জে বিষয়/পত্র প্রতি আমরা কত নিয়ে থাকি সেটা নিচে দেওয়া হলো।

  • পিএসসিঃ ২৫০৳/ বিষয় (বোর্ড ১৮০৳)
  • জেএসসি ও জেডিসিঃ ২০০৳/ বিষয় (বোর্ড ১২৫৳)
  • এসএসসিঃ ২০০৳/ পত্র (বোর্ড ১২৫৳)
  • এইচএসসিঃ

আমাদের থেকে বোর্ড চ্যালেঞ্জ করতে যা যা লাগবে

প্রথমত আমাদের কন্টাক্ট পেজ থেকে আমাদের ফেসবুক পেজ অথবা মোবাইল নম্বরে নিচে দেওয়া প্রয়োজনীয় তথ্য ম্যাসেজ করে পাঠান। অথবা ইমেইলও করতে পারেন

তারপর আমাদের থেকে রিপ্লাই পেলে বিকাশের মাধ্যমে পেমেন্ট কম্পলিট করুন। আবেদনটি কনফার্ম করার জন্য ১-২ কার্য দিবস অপেক্ষা করুন।

  • বোর্ড চ্যালেঞ্জ এর জন্য যা যা লাগবেঃ
    ১। আপনার রোল
    ২। রেজিষ্ট্রেশন নম্বর
    ৩। কোন বিষয়ের জন্য বোর্ড চ্যালেঞ্জ করবেন সে বিষয়ের নাম ও বিষয় কোড
    ৪। আপনার ফোন নম্বর (এই নম্বরে কনফার্মেশন এসএমএস ও রেজাল্ট জানানো হবে)
    ৫। আপনার বোর্ডের নাম

শর্তাবলি ও অবশ্যই পালনীয় নিয়ম

রেজাল্ট প্রকাশিত হলে এসএমএস এর মাধ্যমে জানানো হয়। কিন্তু মাঝেমধ্যে এসএমএস পেতে দেরি হয়।

১-৩ দিনও সময় লাগে। কিন্তু স্ব স্ব শিক্ষা বোর্ডের ওয়েবসাইটে শুধুমাত্র যাদের রেজাল্ট পরিবর্তন হবে তাদের তালিকা প্রকাশিত হবে।

আবারো বলছি। সবার তালিকা দিবেনা, শুধুমাত্র যাদের রেজাল্ট পরিবর্তন হবে তাদের নামই থাকবে।

কেউ কেউ এসএমএস না আসলে সন্দেহ করে। তারা ফোন করে বিরক্ত করে। একটু অপেক্ষা করতে চায়না। তাই এই বিষয়টি জেনে রাখুন। আর অযথা ফোন করা যাবেনা।

কিভাবে বুঝবেন ট্রিক ব্লগ বিডি সত্যিই আবেদন করেছে?

আপনার বোর্ড চ্যালেঞ্জ বা পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন সফল হলে একটি এসএমএস পাবেন। সেখানে একটা ট্র‍্যাকিং আইডি থাকবে। এই ম্যাসেজটা পেলেই বুঝবেন যে আপনার আবেদনটি সফল হয়েছে।

যেকোনো সহায়তায় টেলিটক কাস্টমার কেয়ারে কল করুন।

বিঃদ্রঃ মাঝেমধ্যে নিশ্চিত করণ এসএমএস পেতেও দেরি হয়।

এগুলা জেনেই আমাদের থেকে আবেদন করতে হবে। অন্যথায় আমাদের থেকে বোর্ড চ্যালেঞ্জের আবেদন করবেন না। কারণ, অনেকেই কল করে অযথা বিরক্ত করে।

আমরা বিরক্তি থেকে বাঁচতে চাই ও খারাপ মন্তব্য থেকেও বাঁচতে চাই। তাই নিয়ম কানুন গুলো পড়ে নিবেন। আর অবশ্যই অযথা কল বা ম্যাসেজ করবেন না। শুধুমাত্র সমস্যা পড়লেই আমাদের জানাবেন।

টাকা ফেরত পাওয়ার নিয়ম

আমাদের পক্ষ থেকে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে কাজ করা সম্ভব না হলে আপনাকে সম্পূর্ণ টাকা ফেরত দেওয়া হবে। কোনো সার্ভার জটিলতা বা সময় বেশি লাগতে পারে। অথবা, আবেদন নিয়ে কোনো জটিলতা সৃষ্টি হলে আপনাকে সম্পূর্ণ টাকা বিকাশের মাধ্যমে ফেরত দেওয়া হবে।

বিঃদ্রঃ একবার আবেদন করা হয়ে গেলে টাকা আর ফেরত দেওয়া সম্ভব নয়। টাকা ফেরত নিতে হলে আবেদনের আগেই জানাতে হবে।

বোর্ড চ্যালেঞ্জ এর আবেদনের পর আপনার করণীয় কি?

আপনার আবেদন সফল হলে আবেদনকৃত টেলিটক সিম থেকে নির্দিষ্ট ফি কেটে নেওয়া হবে। আর টেলিটক সিম ও আবেদনে দেওয়া কন্টাক্ট নম্বরে একটা কনফার্মেশন এসএমএস (SMS) যাবে। সার্ভার জটিলতা থাকলে আবেদন কনফার্ম হতে কিছুটা সময় লাগতে পারে।

সেই কনফার্মেশন ম্যাসেজে একটি ট্র‍্যাকিং নম্বর বা আইডি থাকবে। সেটিকে অবশ্যই সংরক্ষণ করুন। পরবর্তীতে এই ট্র‍্যাকিং নম্বরটি কাজে আসতে পারে।

আমাদের থেকে বোর্ড চ্যালেঞ্জ করালে আপনি নিজেই নিজের ট্র‍্যাকিং কোড/নম্বর সেভ করে রাখতে হবে। আমাদের থেকে অনেকেই আবেদন করায়। তাই সবার ট্র‍্যাকিং নম্বর আমাদের পক্ষে সেভ করা সম্ভব নয়।

ট্র‍্যাকিং নম্বর ভুলে গেলে বা হারিয়ে ফেললে পরবর্তীতে তা প্রয়োজন হলে ট্রিক ব্লগ বিডি এর জন্য দায়ী থাকবেনা। তবে আমাদের কাছে কোনোক্রমে সেই ম্যাসেজটি থাকলে আমরা মানবতার খাতিরে আপনাকে সাহায্য করার চেষ্টা করবো। তবে এটি করার জন্য বাধ্য থাকবো না।

মূল কথা, আপনার ট্র‍্যাকিং নম্বর আপনাকেই সেভ রাখতে হবে।

Spread the love

26 COMMENTS

  1. 2019 সালের বোর্ড চ্যালেঞ্জ রেজাল্ট কতদিন পর দেওয়া হ বে? নিদির্ষ্ট সময়ের মধ্যে না দিলে তো আমরা কলেজে ভর্তি হতে পারবো না…সুতরাং কতদিন পরে বোর্ড চ্যালেঞ্জ এর ফলাফল পাবো?

    • বোর্ড চ্যালেঞ্জ এর রেজাল্ট কলেজে আবেদনের পর দিবে। আপনি পাশ করে থাকলে ১২ থেকে ২৩ ই মে ২০১৯ এর মধ্যেই কলেজে ভর্তির আবেদন করতে হবে।

      আর রেজাল্ট পরিবর্তন হলে আপনাদের জন্য আবার আবেদন করার সুযোগ দেওয়া হবে। কলেজে আবেদন সম্পর্কে আমাদের ব্লগে পোস্ট করা হয়েছে।

      ঐ পোস্টে বোর্ড চ্যালেঞ্জকারীদের আবেদন সম্পর্কে বলা হয়েছে। সে পোস্টটি দেখে নিন

      • ভাইয়া পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন করলে কি টেলিটক সিমে টাকা রাখতে হবে।সেখান থেকে ফি কাটে নেবে।না অন্যকোনো ভাবে পেমেন্ট করতে হবে। প্লিজ জানাবেন

        • অন্য কোন মাধ্যম নেই। না পারলে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন।

  2. ভাই , বোর্ড চ্যালেন্জ করলে কি MCQ (বহুনির্বাচনী প্রশ্ন) পুন:নিরীক্ষা করে ??

    • জ্বি ভাই। আপনি কোনো বিষয়ে আবেদন করলে তার প্রত্যেকটি কাগজই দেখবে। ধন্যবাদ।

    • সাধারণত ১ মাস পর বোর্ড চ্যালেঞ্জের রেজাল্ট দেওয়া হয়।

  3. ভাই বোর্ড এ গিয়ে কি বোর্ড চেলেন্জ করা যায় একটু জানাবেন দয়া করে,,,!

    • ভাই, এমন কোন কিছু আমার জানা নেই। সম্ভবত এমন কোন উপায় নেই। টেলিটক সিম থেকেই করতে হয়। ধন্যবাদ।

  4. ভাই, ‘ম্যানুয়াল আবেদন’ মানে কি বুঝাচ্ছে?

    • বুঝিনাই, কি বলতে চাচ্ছেন। এমনি “ম্যানুয়াল ” মানে হচ্ছে নিজে থেকে করা। মানে স্বয়ংক্রিয়ভাবে যেটা হয়না। নিজে নিজেই করতে হয়।

  5. ভাইয়া, এইচএসসির বোর্ড চ্যালেঞ্জ এর রেজাল্ট প্রকাশিত হওয়ার আগে কি আমি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এ আবেদন করতে পারব??

    • রেজাল্ট প্রকাশিত হতে সাধারণত একমাস সময় লাগে। কিন্তু এরমধ্যেই ঢাকা ভার্সিটিতে আবেদন করতে হলে আপনার আবেদন করার যোগ্যতা থাকতে হবে। তবে যাদের রেজাল্ট পরিবর্তন হয় তাদের জন্য আলাদা ব্যবস্থা থাকে। এব্যাপারে আরো ভালোভাবে জানতে হলে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে যোগাযোগ করাই ভালো। আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ আপু।

  6. Onk din por aikhane theke Ami board challenge kore nite parlam Jodi Ami eder help we Jonno pass Kori tahole Ami apnader onk srodda korbo Vai khub vli laglo kaj ta korate pere tnx

    • ভাই, আমাদের কাজ আপনার আবেদনটা করে দেওয়া। বাকিটা বোর্ডের কাজ ও খাতার লেখার উপর নির্ভর করবে।

      আমরা চাইবো সবাই ভাল রেজাল্ট করুক। কেউ করবে আবার কেউ করতে পারবে না। এটাই বাস্তবতা। আমাদের সার্ভিস সর্বোচ্চ পর্যায়ে দেওয়ার চেষ্টা করি। সেক্ষেত্রে কোনো কমতি থাকেনা।

      তবে রেজাল্ট পরিবর্তন হবেই, এমন গ্যারান্টি কেউই দিতে পারবেনা। আশা করি, সর্বোচ্চ সেবাটি দিতে পেরেছি।

  7. আসসালামুআলাইকুম
    ভাইয়া আজ ২০২০ সালের এস.এস.সি পরীক্ষার্থী… যারা পুনঃনিরীক্ষণ এর আবেদন করেছিল, তাঁদের ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে।
    আমিও দুজনের করেছিলাম…একজনের ৭ সাবজেক্ট আরেকজনের ১ সাবজেক্ট। অথচ শিক্ষাবোর্ড কর্তৃক প্রকাশিত তালিকা চেক করে দেখলাম, দুজনের মধ্যে কারো’ই রেজাল্টে কোনো পরিবর্তন হয় নি।
    মোবাইল ফোনে কোনো এস.এম.এস ও আসে নি।
    এই মূহুর্তে আমার সন্দেহ হচ্ছে আমার করা আবেদন নিয়ে? যে আদৌ আমার আবেদন গ্রহণযোগ্য হয়েছে কি না?
    উল্লেখ্য যে আবেদন করার পর কনফার্মেশন এসএমএস ও পেয়েছি। নির্দিশ্ট টাকাও কেটে নিয়েছে।

    বর্তমান সময় আমার করণীয় কি?
    হেল্প’টা করলে কৃতজ্ঞ থাকবো!

    • আপনার আবেদনটি কনফার্ম হয়েছে। আপনি আমাদের এই পোস্টটি ভালোভাবে পড়ে দেখলে কমেন্ট করার দরকার হতোনা। এখানে লেখা আছে “রেজাল্টের এসএমএস আসতে মাঝেমধ্যে কিছু বিলম্ব হয়। ১-৩ দিনও সময় লাগতে পারে। আবার মঝেমধ্যে রেজাল্টের এসএমএস আসেই না”।

      তাই এখানে চিন্তার কিছু নাই। আসলে এসএমএস এর সমস্যাটা টেকনিক্যাল কারণে হয়৷ আপনি আবেদন করার পর কনফার্মেশন এসএমএস পেলেই বুঝে নিবেন আপনার আবেদন সফলভাবে জমা হয়েছে।

      এক্ষেত্রে আমার পরামর্শ হবে আপনি ৩ দিন অপেক্ষা করুন৷ আশা করি, এসএমএস চলে আসবে। একেবারেই না আসলে বোর্ডের সাথে যোগাযোগ করে দেখতে পারেন।

      ধন্যবাদ।

  8. একবার পুনঃনিরীক্ষা হয়ে আসার পর দেখা গেলো রেজাল্ট পরিবর্তন হয় নাই। কিন্তু শিক্ষার্থীর সন্দেহ দূর হচ্ছে না। এক্ষেত্রে কি ২য় বার পুনঃনিরীক্ষার কোন সুযোগ আছে ? আমি কোনদিন শুনি নাই বা দেখি নাই ২য় বার পুনঃনিরীক্ষা করা যায়। তারপরও একজন খুব জোড় দিয়ে বলার জন্য আপনার নিকট জিজ্ঞাসা করছি। দয়া করে জানাবেন ।

  9. ১ঃপ্রশ্নটি হলো বিগত বছরগুলোর এসএসসি ও এইচএসসি পরিক্ষার খাতা বোর্ডে কতদিন রাখা হয়?

    ২ঃ বিগত বছরগুলোর পরিক্ষার্থীদের এসএসসি ও এইচএসসি পরিক্ষার এটেনডেন্স শিট এবং omr কি রেজাল্ট প্রকাশের পরেও বোর্ডে জমা রাখা হয়?

    • খুব বেশিদিন রাখার কথা না। তবে এই বিষয়ে এই মূহুর্তে আপনাকে কোনো তথ্য দিতে পারছিনা।

LEAVE A RESPONSE

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Admin Habibur Rahman is a School teacher. He is a mathematics students at honours.