TrickBlogBD.com

Gain and Give knowledge

Sponsored

Banking

নগদ মোবাইল ব্যাংকিং | ২ মিনিটে একাউন্ট খোলার নিয়ম (ভিডিও)

আজকের বিষয় হচ্ছে নগদ। নগদ মোবাইল ব্যাংকিং কি? এর খরচ, সুবিধা, অফার ইত্যাদি নিয়েই আজকে আলোচনা করা হবে। কিভাবে একটি নগদ একাউন্ট খুলতে পারেন সে সম্পর্কেও ধারণা দেওয়া হবে।

নগদ কি?

ডাক বিভাগের ডিজিটাল মোবাইল ব্যাংকিং হচ্ছে নগদ। এটি থ্রার্ড ওয়েভ টেকনোলজি লিমিটেড কর্তৃক পরিচালিত। এটি বাংলাদেশ ডাক বিভাগের পূর্বে চালুকৃত পোস্টাল ক্যাশ কার্ড এবং ইলেকট্রনিক মানি ট্রান্সফার সিস্টেম (ইএমটিএস)-এর নতুন সংস্করণ।

Advertisements

নগদ সম্পর্কে আরো বিস্তারিত জানতে উইকিপিডিয়ার এই আর্টিকেলটি দেখতে পারেন।

 নগদ মোবাইল ব্যাংকিং | নগদ logo (nagad logo)
নগদ logo

নগদ একাউন্ট খোলার নিয়ম

দুই উপায়ে নগদ একাউন্ট খোলা যায়। অনেকটা বিকাশ একাউন্ট খোলার মতোই।

  • নগদ এজেন্টের মাধ্যমে
  • নগদ মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে

এজেন্টের মাধ্যমে নগদ একাউন্ট খোলার নিয়ম

এজেন্টের মাধ্যমে নগদ একাউন্ট খোলা খুবই সহজ। এজন্য নিচের দেওয়া জিনিসগুলো নিয়ে নগদ এজেন্টের কাছে যান।

  • আপনার সিমে নগদ খুলবেন সেই সিম সহ মোবাইল।
  • আইডি কার্ডের ফটোকপি (অনলাইন কপি হলেও হবে)
  • আপনার ছবি ২ কপি পাসপোর্ট সাইজ ছবি।

মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে নগদ একাউন্ট খোলার নিয়ম

মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে খুব সহজেই নগদ একাউন্ট খুলতে পারবেন। সেজন্য নিচের নিয়মটি অনুসরণ করুন। বুঝতে সমস্যা হলে নিচে দেওয়া ভিডিওটি দেখতে পারেন।

Advertisement
  • প্রথমে নগদ অ্যাপটি চালু করুন
  • রেজিষ্ট্রেশন করুন লেখায় ক্লিক করুন
  • আপনার ফোন নম্বর লিখে পরবর্তী ধাপে ক্লিক করুন
  • আপনার মোবাইল অপারেটর সিলেক্ট করুন
  • আপনার আইডি কার্ডের ধরণ (নতুন অথবা পুরাতন) সিলেক্ট করুন।
  • জাতীয় পরিচয় পত্রের (আইডি কার্ড) সামনের ও পিছনের ছবি তুলে দিন। (কোনো পারমিশন চাইলে দিয়ে দিন)
  • অ্যাপটি আপনার আইডি কার্ড থেকে সকল তথ্য স্ক্যান করে আপনার সামনে দেখাবে। সেই তথ্যগুলো সঠিক কিনা তা একটু যাচাই করে নিন।
  • এরপর পরবর্তী ধাপে যান।
  • স্ক্রিনে দেখানো তথ্যগুলো পূরণ করুন।
  • ইন্টারেস্ট পেতে চাইলে অবশ্যই হ্যাঁ সিলেক্ট করুন।
  • পরবর্তী ধাপে সেলফি স্টাইলে আপনার একটি ফটো তুলুন।
  • ব্যবসার একাউন্ট খুললে ট্রেড লাইসেন্সের ফটো দিন। আর ব্যক্তিগত হলে “স্কিপ করুন” লেখায় ক্লিক করে পরবর্তী ধাপ অনুসরণ করুন।
  • terms and conditions গুলো পড়ে টিক চিহ্নে (√) ক্লিক করুন।
  • এরপর স্ক্রিনে টাচ করে আপনার স্বাক্ষর দিন।
  • পরবর্তী ধাপে সব ঠিক আছে কিনা দেখে নিন। সামনের ধাপে যান।
  • সেখানেও তথ্যগুলো মিলিয়ে দেখুন। পরবর্তী ধাপে যান।
  • ম্যাসেজের মাধ্যমে মোবাইলে আসা OTP (One Time Password) টি লিখে এগিয়ে যান।
  • আপনার একাউন্ট খোলা প্রায় শেষ।
  • এরপর নগদ ইউএসএসডি কোড *167# ডায়াল করে আপনার পিন কোড সেট করে নিন। আশা করি সবাই এটা পারবেন। না পারলে কমেন্ট করে জানান।
  • আপনার একাউন্ট খোলা শেষ।

স্ক্রিনশট দেখতে এখানে ক্লিক করুন

একাউন্টটি খোলার সাথে সাথেই সেটি এক্টিভ হয়ে যাবে। এক্ষেত্রে লেনদেনের লিমিট কম থাকবে। তবে সম্পূর্ণভাবে চালু হতে ৫ দিন দিন সময় লাগবে। একাউন্ট খোলার সাথে সাথে পাবেন ২৫ টাকা বোনাস।

নগদ একাউন্ট খোলার নিয়ম (ভিডিও রিয়েল টেক মাস্টার)

নগদ মোবাইল ব্যাংকিং খরচ

নগদের খরচগুলো নিচে লিস্ট আকারে দেওয়া হলো।

  • *167# ডায়াল করে ক্যাশ আউট করলে ১.৪৫% অর্থাৎ ১ হাজারে ১৪ টাকা ৫০ পয়সা
  • অ্যাপ দিয়ে ক্যাশ করলে ১.৭% অর্থাৎ ১ হাজারে ১৭ টাকা
  • ইউএসএসডি কোড ডায়াল করে সেন্ড মানি করলে প্রতি লেনদেনে ৪ টাকা করে খরচ হবে।
  • অ্যাপ দিয়ে সেন্ড মানি সম্পূর্ণ ফ্রী
  • উভয় ক্ষেত্রে মোবাইল রিচার্জ ফ্রী

খরচের এই তালিকা যেকোনো মূহুর্তে পরিবর্তন হতে পারে। উপরের তথ্যগুলো পোস্টটি লেখার সময় বিদ্যমান ছিল। সব সময় বর্তমান খরচের তালিকা দেখতে এখানে ক্লিক করুন

নগদ মোবাইল ব্যাংকিং এজেন্ট

এজেন্ট হওয়ার জন্য নিয়মকানুন ভবিষ্যতে দেওয়া হবে ইনশাআল্লাহ। আপনি চাইলে তাদের হেল্পলাইনে যোগাযোগ করতে পারেন।

নগদ মোবাইল ব্যাংকিং সুবিধা

নগদ মোবাইল ব্যাংকিংয়ে বাড়তি অনেক সুবিধা আছে। এই সুবিধাগুলো অন্য সব মোবাইল ব্যাংকিংয়ে পাবেন না।

Advertisements

লেনদেনের লিমিট

অন্য মোবাইল ব্যাংকিং থেকে নগদে লিমিট অনেক বেশি। এখানে দৈনিক ও মাসিক অনেক বেশি পরিমাণে টাকা লেনদেন করা যায়।

নগদ ক্যাশব্যাক

নগদ গ্রাহক প্রতি ১০০০ টাকা ক্যাশ-ইন করলে প্রতি হাজারে ৫ টাকা (০.৫%) ক্যাশ-ব্যাক পাবেন। ক্যাশ ব্যাকের টাকা ৭২ ঘণ্টার মধ্যে গ্রাহকের নগদ অ্যাকাউন্টে পৌঁছে যাবে।

নগদ সঞ্চয়

গ্রাহকগণ তাদের নগদ অ্যাকাউন্টে জমা টাকার পরিমাণের উপর সর্বোচ্চ মুনাফা লাভ করবেন। মুনাফা না পেতে চাইলে কাস্টমার কেয়ারে যোগাযোগ করুন।

শর্তাবলি:

নগদ-এর সকল নিয়মিত গ্রাহক নিচের ছকে উল্লিখিত হারে মুনাফা পাবেন-

নগদ মোবাইল ব্যাংকিং সঞ্চয় হার

মুনাফার স্ল্যাববার্ষিক মুনাফা হার
৫০০১ টাকা থেকে ৫০০,০০০ টাকা৭.৫%
১০০১ টাকা থেকে ৫০০০.৯৯ টাকা৫.০%
০ টাকা থেকে ১০০০.৯৯ টাকা০.০%
  • মাসিক ভিত্তিতে মুনাফা প্রদান করা হবে।
  • প্রতিদিনের মুনাফার হার হিসাব করে মাস শেষে মুনাফা প্রদান করা হবে
  • বাংলাদেশের আইন অনুযায়ী প্রযোজ্য ট্যাক্স বা ভ্যাট কর্তনের পর সরাসরি নগদ অ্যাকাউন্টে মুনাফার অংশ পাঠিয়ে দেয়া হবে
  • সঞ্চয়ের মুনাফা বা লাভ গ্রহণ করতে চাইলে অবশ্যই একাউন্টটি এক্টিভ থাকতে হবে।
  • এই অফারটি পরিবর্তন, পরিবর্ধন ও বাতিলের সর্বোচ্চ ক্ষমতা “নগদ” সংরক্ষণ করে।

আরো পড়ুনঃ বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম

কম খরচে ক্যাশ আউট

দেশের সবচেয়ে কম ক্যাশ-আউট চার্জ নিয়ে এসেছে  “নগদ”। ৬ অক্টোবর, ২০১৯ থেকে নগদ-এর সকল গ্রাহক যেকোনো নগদ উদ্যোক্তা পয়েন্ট থেকে ১ দশমিক ৪৫ শতাংশ মূল্যে ক্যাশ-আউট করতে পারবেন। অর্থাৎ প্রতি হাজারে নগদ এর ক্যাশ-আউট চার্জ এখন ১৪ টাকা ৫০ পয়সা।

নগদ অফার

অফার পেতে কে না পছন্দ করে? তাই সবসময়ই নগদ আপনার জন্য রেখেছে দারুণ দারুণ সব অফার। এই অফারগুলো জানতে এখানে ক্লিক করুন

নগদ মোবাইল ব্যাংকিং কোড

নগদ মোবাইল ব্যাংকিংয়ের ইউএসএসডি কোড হচ্ছে *167#। এই কোড ডায়াল করে আপনি সব ধরণের লেনদেন করতে পারবেন।

নগদ কাস্টমার কেয়ার নম্বর

যেকোন ধরণে তথ্য জানতে অথবা সমস্যা, পরামর্শ ও অভিযোগ জানাতে কল করুন নগদ হেল্পলাইন নম্বর 16167 এ।

এই পোস্ট সম্পর্কে আপনার কোনো মন্তব্য, পরামর্শ বা অভিযোগ থাকলে নিছে কমেন্ট করুন। আমরা প্রত্যেকটা কমেন্টের উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করি।

সকল আপডেট সবার আগে পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন ও টুইটারে ফলো করুন

ট্রিক ব্লগ বিডি
Advertisement

LEAVE A RESPONSE

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Admin Habibur Rahman is a School teacher. He is a mathematics students at honours.