TrickBlogBD.com

Gain and Give knowledge

Mobile tricks Product review

৩০ টি সেরা ক্যামেরা ফোন | ২০২০ সালের সেরা মোবাইল

সেরা ক্যামেরা ফোন

প্রিয় পাঠক, আপনারা এই পোস্টে জানতে পারবেন কিছু সেরা ক্যামেরা ফোন এবং কম দামে সেরা স্মার্টফোন সম্পর্কে জানতে পারবে।

আজকাল স্মার্টফোন সকলরেই আছে। সবাই এখন একটা স্মার্টফোন ব্যবহার করে। ৪ হাজার থেকে শুরু করে প্রায় লাখ টাকার ও স্মার্টফোন রয়েছে। মোবাইল কেনার আগে কিছু জিনিস জেনে নিন

সাধারণ ফোনের চাইতে এ ফোন অনেক স্মার্ট বলেই এর নাম স্মার্টফোন। আমরা সাধারণ স্মার্টফোন ব্যবহারের সময় আমরা ছবিও তুলি। চলুন জেনে নেই কিছু সেরা ক্যামেরা ফোন সম্পর্কে। 

২০২০ সালের সেরা ক্যামেরা ফোন

নিচে ২০২০ সালের কিছু সেরা স্মার্টফোন সম্পর্কে নিচে কিছু তথ্য তুলে ধরা হলো।

সেরা ক্যামেরা ফোন | ২০২০ সালের সেরা মোবাইল
বিভিন্ন ব্র‍্যান্ডের মোবাইল

Samsung Galaxy S10 Plus (স্যামসাং গ্যালাক্সি এস১০ প্লাস)

স্যামসাং একটি অন্যতম সেরা কোম্পানি। এই কোম্পানির কম দামী মোবাইলের পাশাপাশি  দামী মোবাইল ও বাজারে পাওয়া যায়।

তবে, স্যামসাং গেলাক্সি এস ১০ প্লাস ফোনটা বেশ চমক দিয়েছে। এই ডিভাইসে রয়েছে অসাধারণ উন্নত মানের ক্যামেরা। এই ফোনের ক্যামেরা ডিএসএলআর এর মতোই কার্যকারী। এই ডিভাইসে রয়েছে ট্রিপল লেন্স ক্যামেরা।

Google Pixel 3 (গুগল পিক্সেল ৩)

ভালো ক্যামেরা ফোনের মধ্যে গুগল পিক্সেল ৩ পিছিয়ে নেই৷ এই ডিভাইসটি বেশ এগিয়ে রয়েছে। এই ফোনটা নির্মাণ করেছে টেক জায়ান্ট গুগল৷ 

গুগল পিক্সেল ৩ | সেরা ক্যামেরা ফোন
গুগল পিক্সেল ৩

অন্য অনেক ডিভাইস ভালো কোয়ালিটির জন্য ৩-৪ টি ক্যামেরা ব্যবহার করে। কিন্তু গুগল পিক্সেল ৩ ফোনটি মাত্র ১ টি ক্যামেরা ব্যবহার করেই সেরা। যাকে বলে একাই ১০০। কম মেগাপিক্সেল ফোন দিয়ে যে ভালো ছবি তোলা সম্ভব তার উদাহরণ হচ্ছে এই গুগল পিক্সেল ৩ ফোন।

Huawei P 30 Pro (হুয়াওয়ে পি ৩০ প্রো)

ছবি তোলার জন্য এটি সেরা এক ডিভাইস৷ মোবাইল ফটোগ্রাফিকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে গিয়েছে এই ডিভাইসটি। বিভিন্ন ধরনের ছবির পাশাপাশি এই ফোন দিয়ে কম আলোর জায়াগায়ও ভালো ছবি আসে।

এই ফোনে বিভিন্ন ধরনের লেন্স ও ব্যবহার করা হয়েছে। এছাড়া অসাধারণ পোটরেইট মুডের পাশাপাশি রয়েছে ৩২ মেগাপিক্সেল অসাধারণ সেলফি ক্যামেরা যা যেকোনো ছবিকে আকর্ষনীয় করে তুলে।

Apple Iphone XS (অ্যাপল আইফোন এক্স এস)

অ্যাপেলের তৈরী এই ফোনটা ও বেশ উন্নতমানের।  এই ফোনের ক্যামেরা বেশ উন্নতমানের। এই ফোনের অসাধারণ ছবির পাশাপাশি অসাধারণ পোটরেইট মুডে ছবি তুলা যায়।

পিছনে ১২ মেগাপিক্সেলের পাশাপাশি সামনে রয়েছে ৭ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।  এই ফোনের ক্যামেরা অনেক সিম্পল তবে এই ফোন দিয়ে অতি দূরত্ব এর ছবি ও তোলা যায়।

Honor 20 Pro (হোনোর ২০ প্রো)

এই ফোনের ক্যামেরা অনেকটাই  হুয়াওয়ের ভালো ফোন গুলোর মতো। হুয়াওয়ের ফোন আর হোনোর ২০ প্রো ফোনের মধ্যে একটি পার্থক্য হচ্ছে ফোনের দামে।

এই ফোনটির দাম হুয়াওয়ে পি ৩০ প্রো এর চাইতে কম। এই ফোনটিতে রয়েছে ৪ টি ক্যামেরা। ২ মেগাপিক্সেল, ৮ মেগাপিক্সেল, ১৬ মেগাপিক্সেল এবং ৪৮ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা রয়েছে।

এই ফোনের সামনে রয়েছে ২৪ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা। যা দিয়ে অসাধারণ ছবি তোলা যায়। এর পাশাপাশি পোটরেইট মুডে ও ছবি তোলা যায়। তাছাড়া নাইট মুড কিংবা কম আলোকিত জায়গায় বেশী আলোর ছবি তুলতে পারবেন।

এই ফোনে অপটিক্যাল জুমের বিশেষ সুবিধা রয়েছে তবে হুয়াওয়ে পি ৩০ প্রো এর মতো এতে সেন্সর নেই।

Huawei mate 20 pro

হুয়াওয়ের এই ফোনটি অসাধারণ এক ফোন। এই ফোনের একটি বিশেষ আকর্ষণ রয়েছে। আর সেই বিশেষ আকর্ষণ হচ্ছে অপটিক্যাল জুম।

এই ফোনে ৩ টি রিয়্যার ক্যামেরা রয়েছে। প্রাইমারি ক্যামেরাটি ৪০ মেগাপিক্সেলের ৮ মেগাপিক্সেল ও ২০ মেগাপিক্সেলের আল্ট্রা ওয়াইড ক্যামেরাও রয়েছে এই ফোনে।

এই ফোনেও কম আলোতে ভালো ছবি তোলা যায়।  পাঁচগুন বেশী জুম করার ক্ষমতার পাশাপাশি এই ফোনে ২৪ মেগাপিক্সেলের অসাধারণ সেলফি ক্যামেরা রয়েছে। যা দিয়ে অনেক ভালো ছবি তোলা সম্ভব।

One Plus 7 pro

সেরা ক্যামেরা ফোনের ক্ষেত্রে ওয়ান প্লাস ৭ প্রো ও রয়েছে। এই ফোনে ওয়ান প্লাস কতৃপক্ষ নিজেদের সেরা প্রাইমারী লেন্স ব্যবহার করেছে। তাছাড়া পপ আপ সেলফি ক্যামেরা রয়েছে।

৪৮ মেগাপিক্সেল ব্যাক ক্যামেরার পাশাপাশি ১৬ মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা রয়েছে। এই ফোনে তিনগুন অপটিক্যাল রয়েছে।

তাছাড়া পোটরেইট ছবির জন্য এই ফোনটি সেরা একটি ফোন। এর পাশাপাশি দিনের আলোতে এই ফোন দিয়ে বেশ ভালো ছবি তোলা সম্ভব।

Xiaomi Mi 9

শাওমির সেরা ফোনগুলোর মধ্যে এটি একটি। এই ফোনে ৪৮ মেগাপিক্সেল প্রাইমারী ক্যামেরার পাশাপাশি রয়েছে ১২ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। তাছাড়া ১৬ মেগাপিক্সেলের আল্ট্রা ওয়াইড লেন্স রয়েছে।

আর এই ফোনে  রয়েছে ২০ মেগাপিক্সেলের অসাধারণ সেলফি ক্যামেরা। পোটরেইট মুডে এই ফোনে অসাধারণ ছবি তোলা সম্ভব।

Google Pixel 3a

গুগলের কম রেঞ্জের ফোনগুলোর মধ্যে গুগল পিক্সেল ৩ এ একটি। এই ফোনটির মূল্য তুলনামূলক কম। এর পিছনের দিকে ১২ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা পাশাপাশি সামনে ৮ মেগাপিক্সেলের অসাধারণ ক্যামেরা রয়েছে। এই ফোনে ও কম আলোতে ভালো ছবি তোলা যায়। তাছাড়া নাইট মুডে অসাধারণ ভালো ছবি তোলা যায়।

Sony Xperia 1

সনি কোম্পানির অন্যতম ফোনগুলোর মধ্যে সনি এক্সপেরিয়া ১ একটি। এই ফোনে শুধু ছবি নয়, ছবির পাশাপাশি এই ফোনে রয়েছে ভালো ভিডিও কোয়ালিটি।

এই ফোন দিয়ে অসাধারণ  ভিডিও করা যায়। এটি শুধু মোবাইল ফটোগ্রাফি নয়, ভিডিও গ্রাফির জন্য এটি সেরা একটি ফোন। এই ফোন দিয়ে ম্যানুয়েল মুডে অসাধারণ ছবি তোলা সম্ভব।

Sony Xperia 1 | সেরা ক্যামেরা মোবাইল
Sony Xperia 1

এর ক্যামেরা ফোন দিয়েই ম্যানুয়েল মুডে অসাধারণ ভিডিও করা সম্ভব। এই ফোনের পিছনে ১২ মেগাপিক্সেলের পাশাপাশি ৮  মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা রয়েছে, যা বেশ ভাল। এই ফোন দিয়ে বেশী দূরত্ব এর ছবি ও তোলা সম্ভব।

আরো পড়তে পারেন……

  • ৩০ টি সেরা ক্যামেরা ফোন | ২০২০ সালের সেরা মোবাইল
    এক নজরে সম্পূর্ণ পোস্ট সেরা ক্যামেরা ফোন২০২০ সালের সেরা ক্যামেরা ফোনSamsung Galaxy S10 Plus (স্যামসাং গ্যালাক্সি এস১০ প্লাস) Google Pixel 3 (গুগল পিক্সেল ৩)Huawei P 30 Pro (হুয়াওয়ে পি ৩০ প্রো) Apple Iphone XS (অ্যাপল আইফোন এক্স এস)Honor 20 Pro…
  • শাওমি রেডমি নোট সিরিজ | Xiaomi redmi note series
    ভাবছেন একটি মোবাইল কিনবেন? কোন মোবাইলটি ভালো সেটাও বুঝতে পারছেন না? আপনি সঠিক স্থানেই আছেন। এই পোস্টটি আপনার জন্য। আজকের বিষয় “শাওমি রেডমি নোট সিরিজ”। এই পোস্টে আমরা শাওমি রেডমি নোট ৬ প্রো (redmi note 6 pro), নোট ৭ প্রো…
  • মোবাইল কেনার আগে যা জানা দরকার
    আমাদের খুব শখের একটি বস্তু হচ্ছে মোবাইল ফোন। এটি আমাদের নিত্যদিনের সঙ্গী। আমাদের সারা দিনের সুখে দুঃক্ষে,হাসি আনন্দে, সবার খোঁজখবর নেওয়ার কাজে মোবাইল অত্যাবশকীয়। মোবাইল দিয়ে কেউ কাজ করে,কেউ পড়ালেখার কাজে ব্যবহার করে,কেউবা শুধু যোগাযোগের মাধ্যম হিসেবে কাজে লাগায়। তাই…

তাছাড়া পোটরেইট মুডে ছবি তোলার জন্য ও এই ফোনটি অসাধারণ এক ফোন। আর এই ডিভাইসে ৪ কে এইচডিআর ভিডিও গ্রাফি করার ব্যবস্থা ও রয়েছে।

আরো কিছু সেরা ক্যামেরা ফোন

শাওমি রেডমি কে ২০ প্রো :

শাওমির অত্যাধুনিক ফোনগুলোর মধ্যে এটি একটি৷ এর স্ন্যাপড্রাগন ৮৫৫। এর পিছনে ৩ টি ক্যামেরা রয়েছে। প্রাইমারি ক্যামেরাটি ৪৮ মেগাপিক্সেল বিশিষ্ট। তবে এর সামনে সেলফি ক্যামেরা হিসেবে রয়েছে ২০ মেগাপিক্সেল পপ আপ ক্যামেরা।

৮ মেগাপিক্সেলের আল্ট্রা ওয়াইডের ক্যামেরা সাথে টেলিফটো ক্যামেরা হিসেবে ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়েছে। 

আসুস আরওজি ফোন ২

গেমারদের জন্য অন্যতম সেরা একটি মোবাইল। ডিভাইসটির নাম আসুস আরওজি ফোন ২। এই ফোনের ব্যাক ক্যামেরা ৩ টি রয়েছে।

৪৮ মেগাপিক্সেল করে একটি ব্যাক ক্যামেরা রয়েছে এতে পাশাপাশি ব্যাক ক্যামেরা হিসেবে ১৩ মেগাপিক্সেলের একটি ক্যামেরা ও রয়েছে। এই ফোনের সেলফি ক্যামেরা ২৪ মেগাপিক্সেল।

ফোনটির স্ন্যাপড্রাগন ৮৫৫ প্লাস। যারা প্রচুর পরিমা গেমস খেলে তাদের জন্য এটি সেরা একটি মোবাইল। তাই আপনার বাজেট উচ্চমূল্যের হলে আপনি এই ফোনটি ক্রয় করতে পারবেন।

ওয়ানপ্লাস ৭ টি প্রো :

এই ডিভাইসে ১৬ মেগাপিক্সেলের পপ আপ ক্যামেরা যুক্ত করা আছে। স্ন্যাপড্রাগন হিসেবে থাকছে ৮৫৫। তবে এই ফোনটির ব্যাটারি  ৪০৮৫  মিলিএম্পিয়ার। ধামাকা হিসেবে এই ফোনে থাকছে ৩০ ওয়াটের ফার্স্ট চার্জার। ফোনটির বাজার মূল্য প্রায় ৬৫০ ডলার।

আইফোন ১১ প্রো ম্যাক্স :

বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় স্মার্টফোন এর তালিকায় শীর্ষে অবস্থান করছে আইফোন ১১ প্রো ম্যাক্স। এই ফোনে ৩৯৬৯ এর অপেক্ষাকৃত বড় ব্যাটারি হওয়ায়  নিজেকে সেরা হিসেবে রেডি করেছে আইফোন ১১ প্রো ম্যাক্স।

এর ডিসপ্লে প্রায় ৬.৫ ইঞ্চি। এই ফোনে ১২ মেগাপিক্সেল করে ৩টি ব্যাক ক্যামেরা রয়েছে। তবে এই ফোনে আপনি ৪গুন অপটিক্যাল জুম করার সুবিধা পাবেন
টাকার অভাবে অনেকেই ভালো স্মার্টফোন কিনতে পারে না কিন্তু এখন দেশি কোম্পানি ওয়ালটন তাছাড়া সিম্ফোনির মোবাইল বেশ কম দামে বাজারে বিক্রি হয়ে থাকে । চলুন জেনে নেই কম দামে কিছু সেরা মোবাইল সম্পর্কে।

কম দামে সেরা স্মার্টফোন

Maximus D1 :

এই ফোনটির পিছনে ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা পাশাপাশি সামনে ও ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা রয়েছে। র‍্যাম হিসেবে থাকবে ১জিবি, রম থাকছে ৮ জিবি। তাছাড়া আপনি চাইলে অতিরিক্ত মেমোরি কার্ড ও ব্যবহার করতে পারেন। ফোনটির ডিসপ্লে প্রায় ৫ ইঞ্চি।

Maximus D1 ফোনের স্পেসিফিকেশন:

  • ৫ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং রিয়ার ক্যামেরা।
  • ২ হাজার ২০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি।
  • ৭২০ পিক্সেল এইচডি ডিসপ্লে।
  • ১.৩ গিগাহার্টজ স্প্রেডট্রাম চিপসেট।
  • ১ জিবি র‍্যাম এবং ৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ।
  • অ্যান্ড্রয়েড ৮.১ (গো এডিশন) অপারেটিং সিস্টেম।

Maximus P7 :

এই ফোনটি ও ৪জি সমর্থিক স্মার্টফোন।  এই ডিভাইসটি D1 চাইতে ভালো। ব্যাকআপ হিসেবে এর ব্যাটারি ও ভালো। ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা ও রয়েছে। 

Maximus P7 স্পেসিফিকেশন:

  • ৭২০ পিক্সেল এইচডি ডিসপ্লে।
  • অ্যান্ড্রয়েড ৮.১ (গো এডিশন) অপারেটিং সিস্টেম।
  • ৫ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং রিয়ার ক্যামেরা।
  • ২ হাজার ৪০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি।
  • ১ জিবি র‍্যাম এবং ৮ জিবি রম।

Walton Premo EF8 :

ওয়ালটনের এই ফোনটি ও ৪জি সমর্থিক ফোন। এই ফোনে ও ১জিবি র‍্যামের পাশাপাশি ৮ জিবি রম রয়েছে। তবে এই ফোনে  ২হাজার ৫০ মিলিএম্পিয়ার ব্যাকআপ রয়েছে। রয়েছে ৫ মেগাপিক্সেলের একটি ক্যামেরা। এই ফোনটির বাজারমূল্য  ধরা হয়েছে ৪ হাজার ৬৯৯ টাকা। 

Walton Primo EF8 স্পেসিফিকেশন:

  • ৪.৯৫ ইঞ্চি FWVGA+ ডিসপ্লে।
  • ১.৪ গিগাহার্টজ মিডিয়াটেক চিপসেট।
  • ১ জিবি র‍্যাম এবং ৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ।
  • অ্যান্ড্রয়েড ৮.১ (গো এডিশন) অপারেটিং সিস্টেম।
  • ৫ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং রিয়ার ক্যামেরা।
  • ২ হাজার ৫০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি।

Symphony i68 :

এই ফোনটিতে ৫.৪৫ ইঞ্চি ডিসপ্লে রয়েছে। এর পাশাপাশি ১.৫ জিবি র‍্যাম এবং ১৬ জিবি রম রয়েছে। এই ফোনটিতে ৫ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং ৮ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা রয়েছে৷ ২ হাজার ৫০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি ও আছে। 

Symphony i68 স্পেসিফিকেশন:

  • ৫.৪৫ ইঞ্চি ফুল ভিউ এইচডি+ ডিসপ্লে।
  • ১.৪ গিগাহার্টজ কোয়াড কোর মিডিয়াটেক চিপসেট।
  • ১.৫ জিবি র‍্যাম এবং ১৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ।
  • অ্যান্ড্রয়েড ৯ (গো এডিশন) অপারেটিং সিস্টেম।
  • ৫ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং ৮ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা।
  • ২ হাজার ৫০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি।

Walton Primo G9

এই ফোনটি প্রায় ৬০০০ টাকায় আপনি ক্রয় করতে পারবেন। এই ফোনে ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং রিয়ার ক্যামেরা রয়েছে। ২ হাজার ৫০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি ও রয়েছে এই ফোনটিতে। 

Walton Primo G9

স্পেসিফিকেশন:৫.৪৫ ইঞ্চি এইচডি+ ডিসপ্লে১.৬ গিগাহার্টজ অক্টো-কোর ইউনিসোক চিপসেট২ জিবি র‍্যাম এবং ১৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ। অ্যান্ড্রয়েড পাই ৯ অপারেটিং সিস্টেম। ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং রিয়ার ক্যামেরা২ হাজার ৫০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি।

Walton Primo H8

এই ফোনে আপনি ৫.৪৫ ইঞ্চির ডিসপ্লে পাবেন।এই ফোনটিতে আপনি  ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং রিয়ার ক্যামেরা পাবেন। তাছাড়া ৩ হাজার ২০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি ও রয়েছে এই ফোনে। 

Walton Primo H8 স্পেসিফিকেশন

  • ৫.৪৫ ইঞ্চি ফুল ভিউ এইচডি+ ডিসপ্লে।
  • ১.২৮ গিগাহার্টজ মিডিয়াটেক চিপসেট।
  • ২/৩ জিবি র‍্যাম এবং ১৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ।
  • অ্যান্ড্রয়েড ৮.১ অপারেটিং সিস্টেম।
  • ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং রিয়ার ক্যামেরা।
  • ৩ হাজার ২০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি।

itel A55

এই ফোনটির বাজারমূল্য প্রায় ৭০০০ টাকা৷ এই ফোনে রয়েছে ৬ ইঞ্চি ডিসপ্লে। এই ফোনে স্টোরেজ হিসেবে রয়েছে ২ জিবি র‍্যাম এবং ১৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ।

আরো পড়তে পারেন……..

  • Electric Shaver Versus Trimmer
    The pattern of looks with a spotless shave and flawless preparing is on, the requirement for individual salon visit isn’t vital. You can only with significant effort have your own prepping care and style without heading off to a costly…
  • সবচেয়ে সাশ্রয়ী মূল্যে ডিজিটাল ক্লাসরুম উপকরণ
    বিশ্বায়নের যুগে উন্নত দেশের সাথে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশও শিক্ষাক্ষেত্রে তথ্য প্রযুক্তির সমন্বয় ঘটিয়েছে । ফলে শিক্ষার প্রচলিত ধারায় এসেছে ব্যাপক পরিবর্তন। বর্তমানে বেশিরভাগ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানেই শিক্ষার্থীদের পাঠদানের জন্য ব্যবহার করা হচ্ছে ডিজিটাল ক্লাসরুম। যার ফলে শিক্ষার্থীদের শ্রেণির পাঠ বুঝিয়ে দেওয়ার…
  • Best Smart Fitness Band for a workout and exercise
    Best smart fitness bands With the increasing workforce strain and busy lifestyle, workout and exercise goals have come to be part of our everyday life. For achieving your fitness goals, you must have something to measure. This is the reason…
  • Patanjali Face Wash for Pimples
    Clear skin and face is the dream of every girl. But this polluted environment and faulty dietary habits makes it impossible for a girl to get clear and pimple free skin. Keeping this problem in mind, various brands have launched…
  • কেন RO Water Purifier প্রয়োজন?
    পৃথিবী পৃষ্ঠের ৭১% পানি বেষ্টিত এবং মানবদেহের গঠন উপাদানের মধ্যে প্রায় ৭০% ই পানি। চিকিৎসা বিজ্ঞানীদের মতে, মানুষের রোগসমূহের মধ্যে প্রায় ৭০% রোগের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ কারনও পানি । অধিকাংশ পানিবাহিত জীবানুর সংক্রমনে সৃষ্ট বিভিন্ন রোগের উপসর্গসমূহ তাৎক্ষনিকই প্রকাশ পায়…

এই ফোনে ক্যামেরা হিসেবে রয়েছে ৫ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং ৮ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা । তাছাড়া ৩ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি ও রয়েছে এই ফোনে।

itel A55 স্পেসিফিকেশন

  • ৬ ইঞ্চি এইচডি+ ডিসপ্লে।
  • ১.৬ গিগাহার্টজ অক্টো-কোর ইউনিসোক চিপসেট।
  • ২ জিবি র‍্যাম এবং ১৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ।
  • অ্যান্ড্রয়েড পাই ৯ অপারেটিং সিস্টেম।
  • ৫ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং ৮ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা।
  • ৩ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি।

itel S15 Pro

এই ফোনে ৬.১ ইঞ্চির ডিসপ্লে রয়েছে। এই ফোনে  ২ জিবি র‍্যাম এবং ৩২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ রয়েছে । ক্যামেরা হিসেবে রয়েছে ১৬ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং ৮+৫+০.৮ মেগাপিক্সেল ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা। তাছাড়া ৩ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি ও রয়েছে এই ফোনে। 

itel S15 Pro স্পেসিফিকেশন:

  • ৬.১ ইঞ্চি এইচডি+ ফুল ভিউ ডিসপ্লে।
  • ১.৬ গিগাহার্টজ ইউনিসোক চিপসেট।
  • ২ জিবি র‍্যাম এবং ৩২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ।
  • অ্যান্ড্রয়েড ৯ (গো এডিশন) অপারেটিং সিস্টেম।
  • ১৬ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং ৮+৫+০.৮ মেগাপিক্সেল ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা।
  • ৩ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি।

Symphony i97

এই ফোনটির দাম ৭ হাজার ৪৯০ টাকা। এই ফোনে ৫.৭ ইঞ্চির ডিসপ্লে রয়েছে। স্টোরেজ হিসেবে এই ফোনে থাকছে ২ জিবি র‍্যাম এবং ১৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ।

এই ফোনের ক্যামেরা হিসেবে থাকছে ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং ১৩ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা। ৩ হাজার ২০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারিও রয়েছে এই ফোনে।

Symphony i97 স্পেসিফিকেশন

  • ৫.৭ ইঞ্চি এইচডি+ ডিসপ্লে।
  • ১.৬ গিগাহার্টজ অক্টো-কোর চিপসেট।
  • ২ জিবি র‍্যাম এবং ১৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ।
  • অ্যান্ড্রয়েড ৯ পাই অপারেটিং সিস্টেম।
  • ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং ১৩ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা।
  • ৩ হাজার ২০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি।

infinix Smart 2 pro

এই ফোনটির দাম ৭ হাজার ৯৯০ টাকার মতো৷ এই ফোনে ৫.৫ ইঞ্চির ডিসপ্লে রয়েছে। ফোনটিতে ২ জিবি র‍্যাম এবং ১৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ রয়েছে।

এই ফোনের ক্যামেরা হিসেবে রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং ১৩+২ মেগাপিক্সেল ডুয়েল রিয়ার ক্যামেরা। ৩ হাজার ৫০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি রয়েছে এই ফোনে। 

Infinix Smart 2 Pro স্পেসিফিকেশন:

  • ৫.৫ ইঞ্চি এইচডি+ ফুল ভিউ ডিসপ্লে।
  • ১.৫ গিগাহার্টজ মিডিয়াটেক চিপসেট।
  • ২ জিবি র‍্যাম এবং ১৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ।
  • অ্যান্ড্রয়েড ৮.১ অপারেটিং সিস্টেম।
  • ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং ১৩+২ মেগাপিক্সেল ডুয়েল রিয়ার ক্যামেরা।
  • ৩ হাজার ৫০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি।

Infinix Hot S3

এই ফোনটির বাজারমূল্য ৮ হাজার ৯৯০ টাকা৷ এই ফোনের ডিসপ্লে হিসেবে রয়েছে ৫.৭ ইঞ্চির  ডিসপ্লে। এই ফোনে ক্যামেরা হিসেবে রয়েছে ২০ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং ১৩ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা। ৪ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি ও রয়েছে এই ফোনে।

Infinix Hot S3 স্পেসিফিকেশন:

  • ৫.৭ ইঞ্চি এইচডি+ ডিসপ্লে।
  • ১.৪ গিগাহার্টজ স্ন্যাপড্রাগন ৪৩০ চিপসেট।
  • ৩ জিবি র‍্যাম এবং ৩২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ।
  • অ্যান্ড্রয়েড ৮ ওরিও অপারেটিং সিস্টেম।
  • ২০ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং ১৩ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা।
  • ৪ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি।

Primo RX7 mini

এই ফোনটির দাম ৮ হাজার ৯০০ টাকা প্রায়। এই ফোনে রয়েছে ৬.১ ইঞ্চির ডিসপ্লে। ফোনে রয়েছে ৩ জিবি র‍্যাম এবং ৩২ জিবি রম। এই ফোনের ক্যামেরা হিসেবে রয়েছে  ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং ১৩+৫ মেগাপিক্সেল ডুয়েল রিয়ার ক্যামেরা। তাছাড়া ৩ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারিও রয়েছে এই ফোনে। 

Primo RX7 Mini স্পেসিফিকেশন:

  • ৬.১ ইঞ্চি এইচডি+ ডিসপ্লে।
  • ১.৮ গিগাহার্টজ অক্টো-কোর চিপসেট।
  • ৩ জিবি র‍্যাম এবং ৩২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ।
  • অ্যান্ড্রয়েড পাই ৯ অপারেটিং সিস্টেম।
  • ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং ১৩+৫ মেগাপিক্সেল ডুয়েল রিয়ার ক্যামেরা।
  • ৩ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি।

Symphony Z20

এই ফোনটি ও কম বাজেটের ফোন গুলোর মধ্যে সেরা একটি ফোন। এই ফোনে ৩ জিবি র‍্যাম এবং ৪ জিবি রম রয়েছে। মেমোরি কার্ডের মাধ্যমে ৬৪ জিবি পর্যন্ত ও বাড়ানো সম্ভব। এই ফোনটির বাজারমূল্য ৮ হাজার ৯০০ টাকা৷   

এই ফোনের ক্যামেরা হিসেবে রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং ১৩+২ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা। তাছাড়া ৩ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি ও রয়েছে এই ফোনে।

Symphony Z20 স্পেসিফিকেশন

  • ৬.২৬ ইঞ্চি এইচডি+ ডিসপ্লে।
  • ১.৬ গিগাহার্টজ অক্টো-কোর চিপসেট।
  • ৩ জিবি র‍্যাম এবং ৩২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ।
  • অ্যান্ড্রয়েড পাই ৯ অপারেটিং সিস্টেম।
  • ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং ১৩+২ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা।
  • ৩ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি।

Xiomi Redmi 8A

আনঅফিশিয়াল ভাবে এই ফোনটি প্রায় ৮-৯ হাজার টাকার ভিতরে পাওয়া যায়। এই ফোনে রয়েছে ২ জিবি র‍্যাম এবং ৩২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ রয়েছে। অ্যান্ড্রয়েড ৯ অপারেটিং সিস্টেম।এই ফোনে ক্যামেরা হিসেবে রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং ১২ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা। ৫ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি ও রয়েছে এই ফোনে।

Xiaomi Redmi 8A স্পেসিফিকেশন

  • ৬.২ ইঞ্চি এইচডি+ ডিসপ্লে।
  • ১.৯৫ গিগাহার্টজ স্ন্যাপড্রাগন ৪৩৯ চিপসেট।
  • ২ জিবি র‍্যাম এবং ৩২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ।
  • অ্যান্ড্রয়েড ৯ অপারেটিং সিস্টেম।
  • ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং ১২ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা।
  • ৫ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি।

Walton Primo R6

এই ফোনটির বাজারমূল্য প্রায় সাড়ে ৯ হাজার টাকা। ক্যামেরা হিসেবে ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং ১৩+২ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা রয়েছে। ৪ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি ও রয়েছে এই ফোনে। 

Walton Primo R6 স্পেসিফিকেশন:

  • ৬.১ ইঞ্চি এইচডি+ ডিসপ্লে।
  • ১.৬ গিগাহার্টজ অক্টো-কোর ইউনিসোক চিপসেট।
  • ৩ জিবি র‍্যাম এবং ৩২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ।
  • অ্যান্ড্রয়েড পাই ৯ অপারেটিং সিস্টেম।
  • ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং ১৩+২ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা।
  • ৪ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি

কম দামে ভালো ফোনগুলোর মধ্যে এই ফোনগুলো অন্যতম। প্রিয় পাঠক এই পোস্টে আমরা জেনেছি সেরা কিছু ফোন সম্পর্কে এবং জেনেছি সেরা কিছু ক্যামেরা ফোনের পাশাপাশি সেরা কিছু কম বাজেটের ফোন সম্পর্কে। 

Spread the love

LEAVE A RESPONSE

Your email address will not be published. Required fields are marked *

হাবিবুর রহমান একজন কন্টেন্ট রাইটার। একই সাথে খুটিনাটি কিছু এসইও এর কাজ করেন। ট্রিক ব্লগ বিডিতে সিইও হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।