নগদ একাউন্টের সুবিধা ও অসুবিধা | যা না জানলেই নয়

নগদ একাউন্ট ব্যবহার করেন এমন মানুষের সংখ্যা কম নয়। কিন্তু কেউ কেউ আছেন যারা এখনো নগদ একাউন্ট খোলেননি। কেন নগদ একাউন্ট খুলবেন ? কেন খুলবেন না ? এসব কিছু নিয়েই বিস্তারিত জানার জন্য আমাদের আজকের এই আর্টিকেল। চলুন নগদ একাউন্টের সুবিধা ও অসুবিধা বিস্তারিত জেনে নেই।

নগদ কি?

নগদ কি? এতদিনে অনেকেই বিষয়টি জানেন। নগদ হচ্ছে একটি মোবাইল ব্যাংকিং সার্ভিস যা বাংলাদেশ ডাক বিভাগ কর্তীক পরিচালিত হয়ে থাকে। এর বর্তমান প্রতিযোগী প্রতিষ্ঠান হচ্ছে বিকাশ ও রকেট।

নগদ একাউন্টের সুবিধা ও অসুবিধা
নগদ একাউন্টের সুবিধা ও অসুবিধা

বর্তমানে বেশিরভাগ মানুষ বিকাশ ও রকেট ব্যবহার করছেন। কিন্তু নগদে বর্তমানে বিভিন্ন প্রকার অফার ও সুবিধা রয়েছে। যা জানলে আপনিও নগদ একাউন্ট খুলতে বাধ্য হবেন।

তো আর কথা না বাড়িয়ে নগদ একাউন্টের সুবিধা ও অসুবিধা সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

নগদ একাউন্টের ক্যাশ আউট চার্জ

নগদ একাউন্টের সবচেয়ে বড় সুবিধা হলো ক্যাশ আউট সুবিধা। দেশের সর্বনিম্ন চার্জে ক্যাশ করার সুবিধা পাচ্ছেন একমাত্র নগদ মোবাইল ব্যাংকিংয়ে।

নগদ দিচ্ছে দেশের সর্বনিম্ন ক্যাশ আউট চার্জ। মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে ক্যাশ আউট চার্জ পাচ্ছেন হাজারে ৯.৯৯ টাকা এবং *১৬৭# ডায়াল করে ক্যাশ আউট করলে খরচ পড়বে হাজারে ১২.৯৯ টাকা। বর্তমানে এটি বাংলাদেশের সর্বনিম্ন মোবাইল ব্যাংকিং ক্যাশ আউট চার্জ।

অ্যাপের মাধ্যমে প্রতি হাজারে ৯.৯৯ টাকা খরচ হলেও ভ্যাট সহ সেই খরচ পড়বে ১১.৪৯ টাকা। একইসাথে ইউএসএসডি ডায়াল করে ক্যাশ আউট করলে সেই খরচ পড়বে ১৪.৯৪ টাকা। নিচের টেবিলে বিস্তারিত তুলে ধরা হলো।

মাধ্যমক্যাশ আউট চার্জ – প্রতি হাজারে
(ভ্যাট ছাড়া)
ক্যাশ আউট চার্জ – প্রতি হাজারে
(ভ্যাট সহ)
অ্যাপ৯.৯৯ টাকা১১.৪৯ টাকা
ইউএসএসডি১২.৯৯ টাকা১৪.৯৪ টাকা
নগদ ক্যাশ আউট চার্ট

নগদ মোবাইল ব্যাংকিং লাখপতি

একটি সময়ে নগদে লাখপতি অফার ছিল। এই অফারটি শুধুমাত্র গ্রামিণফোন গ্রাহকদের জন্য প্রযোজ্য ছিল। বর্তমানে ক্যাম্পেইনটি বন্ধ রয়েছে।

ব্যাংক একাউন্ট থেকে Add money করার সুবিধা

ইতিমধ্যেই জেনেছেন নগদ একাউন্টে বিভিন্ন প্রকারের সুযোগ সুবিধা রয়েছে। তার মধ্যে অন্যতম একটি সুবিধা হচ্ছে ইন্টারনেট ব্যাংকিং থেকে টাকা ঢুকানোর সুবিধা।

বিকাশ একাউন্টে ব্যাংক একাউন্ট থেকে টাকা Add money করার সুবিধা অনেক আগেই চালু হয়েছিল। খুব সহজেই ইন্টারনেট ব্যাংকিং একাউন্ট থেকে বিকাশে টাকা আনা যেতো। একই রকমের সুবিধা নিয়ে এসেছে ডাক বিভাগের নগদ।

বর্তমানে অল্প কয়েকটি ব্যাংক থেকে নগদে টাকা ঢুকানো যাচ্ছে। তবে আশা করা যায় অদূর ভবিষ্যতে সবগুলো ব্যাংক থেকেই এই সুবিধা পাওয়া যাবে।

আরেকটি কথা বলতে ভুলেই গিয়েছিলাম। ব্যাংক থেকে অ্যাড মানি কিন্তু সম্পূর্ণ ফ্রি। ব্যাংক থেকে টাকা নিতে আপনাকে বাড়তি কোনো খরচ করতে হবেনা।

কার্ড থেকে অ্যাড মানি

ব্যাংকের পাশাপাশি ডেবিট ও ক্র্যাডিট কার্ডের মাধ্যমেও নগদ একাউন্টে টাকা ঢুকানো যাবে। যা আপনাকে দারুণভাবে সাহায্য করবে। যাদের কার্ড আছে একাউন্টে টাকা ঢুকানো নিয়ে তাদের কোনো সমস্যায় পড়তে হবেনা।

মোবাইল রিচার্জ সুবিধা

অন্যান্য মোবাইল ব্যাংকিং সার্ভিসের মতো নগদ একাউন্টেও পাচ্ছেণ মোবাইল রিচার্জ সুবিধা। যেকোন সময় খুব সহজেই নগদ একাউন্টের মাধ্যমে মোবাইলে রিচার্জ করে নিতে পারেন।

Sponsored by TrickBlogBD

বয়স বের করতে চান? আমাদের ফ্রী টুল বয়স ক্যালকুলেটর ব্যবহার করে মূহুর্তেই বয়স বের করুন।

মোবাইল রিচার্জ সার্ভিসটিও আপনি সম্পূর্ণ ফ্রিতে ব্যবহার করতে পারবেন। এজন্য আপনাকে কোনো চার্জ দিতে হবেনা।

নগদ থেকে বিকাশে টাকা ট্রান্সফার

বাংলাদেশ ব্যাংকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী শীঘ্রই সকল মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্ট থেকে সকল মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্টে টাকা লেনদেন করার সুবিধা আসছে। অর্থাৎ বিকাশ থেকে নগদে ও নগদ থেকে বিকাশে টাকা ট্রান্সফার যাবে। একই সাথে রকেটেও একই সুবিধা পাওয়া যাবে।

আবার সকল ব্যাংক থেকেও সকল মোবাইল ব্যাংকিংয়ে টাকা লেনদেন করা যাবে। এ বিষয়ে পারস্পরিক লেনদেন হবে বিকাশ, নগদ, রকেট ও ইউক্যাশে শীর্ষক খবর প্রকাশ করেছে বিডি নিউজ ২৪। আমরা সবাই সেই সুবিধা পাওয়ার অপেক্ষায় রইলাম।

নগদ একাউন্টের মুনাফা

নগদ মোবাইল ব্যাংকিং এর সঞ্চয় এর মাধ্যমে আপনি মুনাফা পেতে পেতে পারেন। নগদ একাউন্টের মুনাফা বা ইন্টারেস্টের বিষয়ে আমাদের সাইটে একটি পূর্ণাঙ্গ পোস্ট আছে। এ বিষয়ে বিস্তারিত জানতে পোস্টটি দেখে নিতে পারেন। এখানে নগদ একাউন্টের মুনাফার বিষয়ে ছোট করে কিছু ধারণা দিয়ে দিচ্ছি।

নগদ-এর সকল নিয়মিত গ্রাহক নিচের ছকে উল্লিখিত হারে মুনাফা পাবেন-

মুনাফার স্ল্যাববার্ষিক মুনাফা হার
৫০০০.০০১ টাকা থেকে ঊর্ধ্বে৬.০%
১০০০.০০১ টাকা থেকে ৫০০০.০০০ টাকা৪.০%
০ টাকা থেকে ১০০০.০০০ টাকা০.০%
সঞ্চয়ের হার

সর্বনিম্ন এক হাজার এক টাকা (১০০০.০০১৳) থেকে শুরু করে যে কোন পরিমাণ টাকা নগদ একাউন্টে একমাস রাখলে আপনি নির্দিষ্ট হারে মুনাফা পাবেন। এক্ষেত্রে ১০০০.০০১ টাকা থেকে শুরু করে ৫,০০০ টাকা পর্যন্ত নগদ একাউন্টে রাখলে বাৎসরিক ৪.০% হারে মুনাফা দেওয়া হবে।

সেই মুনাফার টাকা নির্দিষ্ট হিসাব অনুযায়ী মাস শেষে আপনার নগদ একাউন্টে যুক্ত হবে। ৫০০০.০০১ টাকা থেকে শুরু ঊর্ধ্বে যেকোনো পরিমাণ টাকা সর্বনিম্ন একমাস আপনার নগদ একাউন্টে থাকলে সে ক্ষেত্রে আপনি বাৎসরিক ৬.০% হারে ইন্টারেস্ট পাবেন।

নগদ মোবাইল ব্যাংকিং app

নগদ একাউন্ট ব্যবহারকে আরো সুবিধাজনক করার জন্য নদ্গ নিয়ে এসেছে নগদ মোবাইল ব্যাংকিং app যা নগদ অ্যাপ- নামে পরিচিত। নগদ অ্যাপের মাধ্যমে খুব সহজেই বিভিন্ন সার্ভিস নেওয়া যায়। এর মধ্যে রয়েছে……..

  • মোবাইল রিচার্জ
  • সেন্ড মানি
  • বিল পেমেন্ট
  • শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিল পরিশোধ
  • বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ
  • পানির বিল পরিশোধ
  • গ্যাসের বিল পরিশোধ
  • টিভি ও টেলিফোন বিল পরিশোধ
  • ইন্টারনেট বিল পরিশোধ
  • আয়কর দেওয়ার সুবিধা
  • বিভিন্ন সংস্থায় ডোনেশন সুবিধা ইত্যাদি।

উপরের তালিকায় দেওয়া নগদ একাউন্টের সুবিধা গুলো এক এক করে বর্ণনা করা হলো। আশা বিস্তারিত বুঝতে সুবিধা হবে। আর্টিকেলটি পড়তে থাকুন। নগদ বিল পে সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন।

বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ

নগদ একাউন্টের মাধ্যমে DPDC, NESCO, DESCO সহ আরো কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করা যায়। নগদ একাউন্টের সুবিধার মধ্যে এটি অন্যতম। লাইনে দাঁড়িয়ে বিল পরিশোধের দিন শেষ। শীঘ্রই অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের বিলও পরিশোধ করা যাবে।

নগদ একাউন্টের মাধ্যমে বিল পেমেন্ট করার সুবিধা

বিভিন্ন অনলাইন শপ ও শো রুমের পেমেন্ট করলে আপনি পেয়ে যাবেন স্পেশাল ডিস্কাউন্ট। অর্থাৎ ক্যাশ টাকা না থাকলেও বিভিন্ন জায়গা থেকে নগদ পেমেন্টের মাধ্যমে পণ্য কিনতে পারবেন। সাথে সাথে ডিস্কাউন্টও পাবেন।

কোন কোন শপ থেকে নগদ পেমেন্টের মাধ্যমে ডিস্কাউন্ট পাবেন তার লিস্ট দেখতে নগদ অ্যাপে ভিজিট করুন।

পানির বিল পরিশোধ করার সুবিধা

পানির বিল দেওয়ার জন্য আর চিন্তার কারণ নেই। আপনি হয়তো অবাক হবে যে, নগদ একাউন্টে পানির বিলও পরিশোধ করা যায়। যা আপনার জীবনকে আরো সহজ করে দিবে।

ঢাকা ওয়াসাখুলনা ওয়াসার মতো বড় বড় প্রতিষ্ঠানের পানির বিল খুব সহজেই নগদ একাউন্টের মাধ্যমে পরিশোধ করতে পারবেন।

গ্যাসের বিল পরিশোধ

শুধুমাত্র পানি, বিদ্যুৎ বিল নয়, নগদ একাউন্টের মাধ্যমে খুব সহজে গ্যাসের বিলও দিতে পারবেন। জালাবাদ, তিতাস , বাক্রাবাদের মতো বড় বড় প্রতিষ্ঠানের গ্যাসের বিল নগদের মাধ্যমে পরিশোধ করতে পারবেন।

টিভি ও টেলিফোন বিল পরিশোধ করার সুযোগ সুবিধা

নগদ একাউন্টের সুবিধা বলে শেষ করতে পারছিনা। আপনারাও পড়তে পড়তে হয়ত বিরক্ত হয়ে যাচ্ছেন। কিন্তু না বলেও থাকতে পারছিনা। নগদ একাউন্টে খুব সহজে টিভি ও টেলিফোন বিল পরিশোধ করা যায়।

BTCL, AKASH DTH এর বিল খুব সহজে নগদ একাউন্টের মাধ্যমে পরিশোধ করা যায়। আপনার জীবনকে আরো ডিজিটাল করার জন্য নগদ আছে আপনার পাশে। এছাড়াও বিটিসিএল থেকে ডোমেইন কিনে তার পেমেন্টও নগদের মাধ্যমে দিতে পারবেন।

নগদে ইন্টারনেট বিল পরিশোধ

নগদ একাউন্টের মাধ্যমে খুব সহজে ইন্টারনেট বিল পরিশোধ করতে পারবেন। এক্ষেত্রে AmberIT, Carnival, Link3 , Sam Online KS Network Ltd এর মতো স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠানের ইন্টারনেট বিল নগদের মাধ্যমে পরিশোধ করতে পারবেন।

আয়কর দেওয়ার সুবিধা

আয়কর দাতারা দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকেন। তাদের আয়কর দেওয়াকে আরেকটু সহজ করতে নগদ নিয়ে এসেছে আয়কর প্রদানের সুবিধা।

নগদ অ্যাপে ঢুকে আয়কর পেমেন্ট বাটনে ক্লিক করলেই সেটি আপনাকে পেমেন্ট পেজে নিয়ে যাবে।

বিঃদ্রঃ সকল প্রকার বিল পরিশোধ করার জন্য নগদ অ্যাপের পে বিল অপশনে যেতে হবে

২৪/৭ ঘন্টা হেল্পলাইন সুবিধা

নগদে রয়েছে ২৪/৭ হেল্পলাইন সুবিধা। যেকোন সমস্যায় সহযোগীতা দেওয়ার জন্য নগদ কাস্টমার ম্যানেজাররা ২৪ ঘন্টা আপনার অপেক্ষায়। আপনার সমস্যার দ্রুত সমাধান পেতে কল করার সুবিধা থাকছে ২৪ ঘন্টা ও সপ্তাহে ৭ দিন।

মজার বিষয় হচ্ছে, এই আর্টিকেলের বেশিরভাগ তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছে এই হেল্পলাইন থেকে। আমাদের পক্ষ থেকে নগদে কল করে তথ্য সংগ্রহ করা হয়। তারাও অত্যান্ত আন্তরকতার সাথে আমাদের সকল প্রশ্নের উত্তর দিয়ে সহযোগীতা করেছেন।

আপনারও নগদ সম্পর্কিত যেকন সমস্যা ও প্রশ্নের উত্তর জানতে 16167 অথবা 09609616167 নম্বরে কল করতে পারেন।

নগদ একাউন্টের অসুবিধা

নগদ একাউন্টের সুবিধার পাশাপাশি কিছু অসুবিধাও রয়েছে। যার অনেক অসুবিধা ভবিষ্যতে সমাধান হয়ে যাবে বলে আমরা বিশ্বাস করি। প্রথম অসুবিধা হলো নগদ এজেন্ট দোকান এখনো অনেক জায়গায় পাওয়া যায়না। যা আগামী কয়েক বছরে সমাধান হয়ে যাবে আশা করা যায়।

এছাড়াও সকল মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মতো প্রযুক্তিগত জ্ঞানের অভাবে পিন কোড হ্যাক হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এজন্য পিন কোড কারো সাথে শেয়ার করা থেকে বিরত থাকুন। এছাড়াও নগদে কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠানের বিল প্রদান এখনো চালু হয়নি।

বেশির সমস্যাই সাময়িক, যা সময়ের সাথে ঠিক হয়ে যাবে আশা করা যায়।

নগদ একাউন্টের সুবিধা ও অসুবিধা তো জানা হলো। আপনি হয়তো নগদ একাউন্ট খোলার কথা ভাবছেন। চিন্তার কোনো কারণ নেই। খুব সহজে একাউন্ট খোলার জন্য আমাদের আর্টকেল নগদ একাউন্ট খোলার নিয়ম পড়ে নিতে পারেন।

2 thoughts on “নগদ একাউন্টের সুবিধা ও অসুবিধা | যা না জানলেই নয়”

  1. দারুণ তথ্যবহুল লেখা। আপনার প্রতিটি লেখায় দারুণ অন্য তাথ্যিক হয়। বাংলা দেশি ব্লগে এত তথ্য বহুল কয়জনেেই লেখে। ধন্যবাদ আপনাকে।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.