ক্রেডিট কার্ড ছাড়া বিকাশ দিয়ে ফেসবুকে এড দিন

ফেসবুকে পণ্যের এড দিয়ে অনেকেই ব্যবসার প্রসার ঘটাতে চায়। এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বিজ্ঞাপন বা এডের জন্য উপযুক্ত স্থান। কিন্তু বেশির ভাগ লোকেরই ক্রেডিট কার্ড বা ডেবিট কার্ড নেই। তাই ইচ্ছা থাকলেও তাদের জন্য ফেসবুকে এড দেওয়া সম্ভব হয়না। কিন্তু আপনি চাইলেই বিকাশ দিয়ে ফেসবুকে এড দিতে পারবেন। কীভাবে? জানতে পুরা পোস্টটা পড়ুন।

বিকাশ দিয়ে ফেসবুকে এড দিন
বিকাশ দিয়ে ফেসবুকে এড দিন

কি কি করতে পারবেন

বিকাশের মাধ্যমে ওয়েবসাইট বুস্ট করতে পারবেন। ওয়েবসাইট বুস্ট করে সাইটে ভিজিটর আনতে পারবেন। ফেসবুক পোস্ট বুস্ট করতে পারবেন। ফেসবুক পেজ প্রমোট করে পেজের লাইক বাড়াতে পারবেন।

অর্থাৎ যাবতীয় ফেসবুক এড দিতে পারবেন। কোনো ক্রেডিট অথবা ডেবিট কার্ড লাগবেনা।

আপনার ফেসবুকের লাইক বাড়লে পণ্যের বেচাকেনা বেশি হবে। ওয়েবসাইট হলে ভিজিটর বাড়বে। এটা সবাই জানেন। তাই সেই সম্পর্কে আর বলব না। আর সেটা করতে হলে এড দেওয়া খুবই জরুরি।

শপ আপ থেকে বিকাশ দিয়ে এড দিন

বিকাশ দিয়ে ফেসবুকে এড বা বিজ্ঞাপণ দিতে হলে একটি ওয়েবসাইটের সাহায্য নিতে হবে। তার নাম হচ্ছে শপ আপ। এই ওয়েবসাইট থেকে আমি পোস্ট বুস্ট করে দেখেছি। তাদের সার্ভিস খুবই ভালো। সমস্যা হলে হেল্পলাইন থেকে সাপোর্ট পাওয়া যায়।

আরো পড়তে পারেনঃ ফেসবুকে বেশি লাইক পাওয়ার উপায়

কীভাবে বিকাশ দিয়ে ফেসবুকে এড দিবেন

বিকাশ দিয়ে পোস্ট বুস্ট করতে হলে শপ আপে আপনার একাউন্ট থাকতে হবে। এখান থেকে একাউন্ট খুলে নিন। সমস্যা হলে ফেসবুক দিয়েও লগইন করে নিতে পারেন।

manage এ ক্লিক করুন
manage এ ক্লিক করুন

ফেসবুক একাউন্ট কানেক্ট করলে এখানে ক্লিক করুন। আপনার ফেসবুক পেজগুলো দেখতে পাবেন। যেটাতে এড দিবেন সেটার পাশে Manage লেখায় ক্লিক করুন।

আপনি উপরের মত একটা পেজ পাবেন। সেখানে Boost your product লেখায় ক্লিক করুন। এখন আপনি নিচের মত একটা পেজ পেয়ে যাবেন।

এখানে ৳৯৫/USD এবং ৳৯৯/USD নামে দুইটা অপশন পাবেন। ৯৫ টাকার প্যাক সিলেক্ট করলে আপনাকে তার্গেট পিপল,লোকেশন ইত্যাদি নিজেই সেট করতে হবে।

আর ৯৯ টাকার প্যাক সিলেক্ট করলে শপ আপ আপনাকে সবকিছু করে দিবে। আপনাকে কিছু করতে হবেনা।

তার্গেট পিপল মানে হচ্ছে আপনি কাদেরকে এই এড দেখাতে চান। তাদের ইন্টারেস্ট,ম্যান নাকি ওমেন কার কাছে আপনি এডটা পৌছাতে চান সেটা দিন। তার্গেট করা লোকদের বয়স দিন। মানে আপনি কত থেকে কত বসয়ের লোকেদের কাছে এড দেখাবেন।

প্রথম বক্সে এডের একটা নাম দিন। দ্বিতীয় বক্সে ক্লিক করে কোন পোস্ট এড দিবেন সেটা সিলেক্ট করুন। অথবা সরাসরি পোস্ট আইডিও দিতে পারেন।

এড কোন জায়গায় শো হবে সেটা দিন। মানে কোন দেশে বা কোন এলাকায়। কতদিন এড দিবেন সেটা দিন। কত ডলারের এড দিবেন তা উল্লেখ করুন।

Sponsored by TrickBlogBD

ট্রিক ব্লগ বিডিতে বড় ধরণের পরিবর্তন করা হয়েছে। কোনো  প্রকার সমস্যায় পড়লে আমাদের ফেসবুক পেজে ম্যাসেজ করুন।

সবকিছু ঠিকঠাকমতো দেওয়া হলে Continue তে ক্লিক করুন। এবার আপনি নিচের মত করে একটা বিকাশ পেমেন্ট পেজ পাবেন।

বিকাশ পেমেন্ট পেজ
বিকাশ পেমেন্ট পেজ

এখানে আপনি শপ আপের মার্চেন্ট বিকাশ নম্বর পাবেন। একটা রেফারেন্স নম্বর পাবেন। কাউন্টার নম্বর পাবেন। এবার *247# ডায়াল করে 3 নম্বর পেমেন্ট অপশন সিলেক্ট করুন।

এরপর মার্চেন্ট বিকাশ নম্বরটি দিন। পেমেন্ট পেজে দেখানো একাউন্ট দিন। ওকে ক্লিক করলে পরপর রেফারেন্স নম্বর ও কাউন্টার নম্বর দেওয়ার অপশন পাবেন। ঐগুলা দিন। এরপর আপনার বিকাশের পিন দিয়ে পেমেন্ট নিশ্চিত করুন।

পেমেন্ট দেওয়ার পর আপনি একটি ম্যাসেজ পাবেন। সেখানে একটা ট্রান্সেকশন আইডি পাবেন। ShopUp এর পেমেন্ট পেজে ট্রান্সেকশন আইডি দিয়ে Create ad লেখায় ক্লিক করলেই আপনার এড রেডি।

কিছুক্ষণ অপেক্ষা করুন। শপ আপ কর্তৃপক্ষ আপনার এড রিভিউ করবে। এরপর সর্বোচ্চ ৮ ঘন্টার মধ্যে এড কনফার্ম করে পাবলিশ করে দিবে। তবে সাধারণত ১ ঘন্টার মধ্যেই এড কনফার্ম হয়ে যায়।

এড কনফার্ম হলে এডের ইন্সাইটে কত এড শো হলো,কত টাকা খরচ হ্লো ইত্যাদি দেখতে পাবেন।

Boost insights
Boost insights

ফেসবুক পেজ বুস্ট কি?

আপনার ফেসবুক পেজকে বেশি সংখ্যক গ্রাহকের কাছে পৌঁছে দিতেই ফেসবুক বুস্ট সার্ভিস। আপনার হয়তো প্রোডাক্ট রিভিউ নিয়ে একটি ফেসবুক পেজ আছে।

হয়তো আপনি এটা বিভিন্ন পণ্য বিক্রি করেন। কিন্তু আপনার পেজে লাইক কম। তাই বেশি সংখ্যক ক্রেতার কাছে পৌঁছাতে পারছেন না।

ধরুন, আপনার ফেসবুক পেজে বর্তমানে ৫০০০ লাইক আছে। আপনি একটি পোস্ট দিলে হয়তো ১০০০ মানুষের কাছে পোস্টটি পৌছায়।

যদি আপনার পেজে ৫০,০০০ লাইক থাকে তাহলে আপনার পোস্ট ৫০০০ হাজার মানুষের কাছে পৌঁছাবে (সংখ্যাটি আনুমানিক)। অর্থাৎ আপনি বেশি মানুষের কাছে পৌঁছাতে পারবেন। আর আপনার বিক্রিও বেশি হবে।

তাহলে আপনি নিশ্চই আপনার ফেসবুক পেজের লাইক বাড়াতে চাইবেন? কিন্তু সেটা কিভাবে?

হুম, পেজের লাইক বাড়াতে চাইলে পেজ বুস্ট করতে হয়। ফেসবুক পেজ বুস্ট করলে, ফেসবুক কর্তৃপক্ষ আপনার পেজটা বিভিন্ন মানুষের কাছে পৌঁছায়।

সেখানে আপনার পেজটিকে লাইক দেওয়ার জন্য মানুষকে পরামর্শ দেওয়া হয়। এসব মানুষের মধ্যে অনেকেরই পেজটি ভালো লাগে। তাই তারা পেজে লাইক দেয়। আর আপনার পেজ থেকে কোনো পোস্ট করলে তারা সেটি পড়তে পারে।

এক্ষেত্রে, সম্ভাব্য কাস্টমার সেট করেও বুস্ট করা যায়। ধরুন, আপনি চাচ্ছেন আপনার পেজটিকে এমন মানুষের কাছে পৌঁছাতে, যারা অনলাইনে কেনাকাটা করতে পছন্দ করে। তাহলে আপনি সেভাবে অডিয়েন্স সেট করে দিতে পারবেন।

তাহলে ফেসবুক তেমন মানুষের কাছেই আপনার পেজকে পৌঁছে দিবে।

কত মানুষের কাছে পেজটি পৌঁছায়

আপনার পেজটি ফেসবুক কর্তৃপক্ষ কতজন মানুষেএ কাছে পৌঁছে দিবে? এটা নির্ভর করবে আপনার বুস্টের বাজেটের উপর। আপনি যত বেশি টাকা দিয়ে বুস্ট করবেন তত বেশি মানুষের কাছে আপনার পেজটি পৌঁছাবে। আর লাইকও তত বেশি হবে।

যেভাবে পেজ প্রমোট করবেন ও ওয়েবসাইট বুস্ট করবেন

ফেসবুক পেজ প্রমোট ও ওয়েবসাইট বুস্ট করতে চাইলে আপনাকে ৳৯৯/USD প্যাক সিলেক্ট করতে হবে। এরপর শপ আপের সাথে যোগাযোগ করতে হবে।

শপ আপের (ShpoUp) সাথে যোগাযোগ কীভাবে করবেন?

শপ আপের সাথে আপনি কয়েকটি উপায়ে যোগাযোগ করতে পারবেন।

কল করুনঃ 09678771288 (সকাল ১০ টা -রাত ১০ টা)
ইমেইলঃ [email protected]
ফেসবুক পেজঃ Shop Up

কিছু বুঝতে সমস্যা হলে কমেন্ট করুন। আর পোস্টটি আপনার আপনার উপকারে এসেছে কিনা জানাতে ভূলবেন না।

এরকম ভালো ভালো ট্রিক্স পেতে চাইলে ট্রিক ব্লগ বিডিতে নিয়মিত ভিজিট করুন। আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন।

Leave a Comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.