হাত ধোয়ার সঠিক নিয়ম ও উপকারিতা | কখন হাত ধুতে হবে?

সংক্রামক রোগসহ নানা প্রকার রোগব্যাধি থেকে বেঁচে থাকার জন্য হাত ধোয়া অত্যাবশ্যক। কিন্তু আমাদের দেশের বেশিরভাগ লোকই সঠিকভাবে হাত ধোয়না। অনেকেই কিভাবে হাত ধুতে হয় সেই নিয়মই জানেন না। আজকে হাত ধোয়ার সঠিক নিয়ম কানুনগুলো শিখাবো।

হাত ধোয়া কেন দরকার

হাত ধোয়া বিষয়টি আমাদের নিত্যদিনের কাজ হলেও আমরা এটিকে খুব একটা গুরুত্ব দেইনা। কিন্তু এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। হাত ধোয়া কেন দরকার? সঠিক উপায়ে হাত ধোয়ার উপর আমাদের সুস্থতা নির্ভর করে।

দৈনন্দিন জীবনে আমরা নানা কাজকর্ম করে থাকি। এতে আমাদের হাত নোংরা হয়ে যায়। হাতে জীবাণু লেগে যায়। এই জীবাণু খাবার খাওয়া, নাকে-মুখে হাত দেওয়া ও বিভিন্ন কারণে আমাদের শরীরে প্রবেশ করে। এতে আমরা অসুস্থ হয়ে পড়ি।

হাত ধোয়ার সঠিক নিয়ম ও উপকারিতা
হাত ধোয়ার সঠিক নিয়ম

সঠিক নিয়মে হাত ধুলে এই রকম রোগের ঝুঁকি থেকে আমরা বেঁচে থাকতে পারবো। তাছাড়া এটি ভ্যাকসিনের থেকেও ভালো কার্যকরী।

যে যে কারণে হাত ময়লা হয় সে সব কাজের পরপরই হাত ধুতে হবে। তাহলেই আমারা খুব সহজেই করোনা ভাইরাসের মতো বিভিন্ন রোগ সৃষ্টিকারী জীবাণু থেকে বেঁচে থাকতে পারবো।

কখন হাত ধুতে হবে

কমন একটি প্রশ্ন “কখন হাত ধুতে হবে?“সোজা কথায় বলি। যে যে কাজ করলে হাত নোংরা হয় এবং হাতে জীবাণু লেগে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে সেইসব কাজের পরপরই সাবান দিয়ে হাত ধুতে হবে। এক্ষেত্রে কমপক্ষে ২০ সেকেন্ড সাবান দিয়ে হাত ঘষতে হবে। নিচে সেরকম কিছু কাজের তালিকা দেওয়া হলো। যে কাজের শেষে সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে নিতে হবে।

কখন সাবান দিয়ে হাত ধুতে হবে
কখন সাবান দিয়ে হাত ধুতে হবে
  • খাওয়ার আগে ও পরে
  • পায়খানা ব্যবহারের পর
  • বাচ্চাকে শৌচ করানোর পর
  • বাচ্চার পায়খানা পরিষ্কার করার পর
  • রোগীর সেবা করার পর
  • অপরিচ্ছন্ন কোনো স্থানে ভ্রমণ করলে
  • বাহির থেকে ঘরে ফিরলে
  • খাবার তৈরির আগে
  • খাবার ধরার আগে
  • কাঁচা মাছ, মাংস ও সবজি ধরার পর
  • পশু-পাখি ধরার পর
  • ময়লা-আবর্জনা পরিষ্কার করার পর
  • সংক্রামক রোগ দেখা দিলে ১-২ ঘন্টা পরপর হাত ধুতে হবে

হাত ধোয়ার ৬ টি ধাপ

হাত ধোয়ার পদ্ধতিগুলো নিচে তালিকা আকারে তুলে ধরা হলো। আশা করি, আপনারা আজ থেকেই নিয়ম মেনে হাত ধুবেন আর সুস্থ থাকবেন।

  • প্রথমে পানি দিয়ে হাত ভালোভাবে ভিজিয়ে নিতে হবে।
  • হাতের তালুতে সাবান নিয়ে ভালোভাবে ঘষে হাতে সাবান লাগাতে হবে।
  • এরপর তালুর সাথে তালু কিছুক্ষণ ভালোভাবে ঘষতে হবে।
হাত ধোয়ার সঠিক নিয়ম ও পদ্ধতি
হাত ধোয়ার সঠিক নিয়ম
  • ছবি ও ভিডিও এর মতো এক হাতের তালু দিয়ে অপর হাতের উপরে-নিচে ও আঙ্গুলের ফাঁকে ফাঁকে ঘষতে হবে।
  • হাতের কব্জির নিচে অন্তত এক আঙ্গুল পরিমাণ নিচে সাবান দিয়ে ধুয়ে নিবেন।
  • এছাড়াও হাতের নখ ছোট রাখবেন ও নখের ভিতরে পরিষ্কার করবেন।

হয়তো লেখা পড়ে বুঝতে সমস্যা হতে পারে। তাই ইউনিসেফের দেওয়া নিয়ম অনুসারে হাত ধোয়ার নিয়মগুলো ভিডিওতে দেখে নিন।

বিশ্ব হাত ধোয়া দিবস

প্রতি বছর ১৫ অক্টোবর তারিখে বিশ্ব ব্যাপী বিশ্ব হাত ধোয়া দিবস পালন করা হয়। মানুষের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টি করা ও মানুষকে হাত ধুতে উদ্ভূদ্ধ করার জন্যই এই দিবস পালন করা হয়।

উপসংহার

আসুন, আমরা সবাই হাত ধোয়ার গুরুত্ব ও উপকারিতা অনুধাবন করি। সঠিক উপায়ে হাত ধোয়ার নিয়ম কানুন সম্পর্কে জানি। অন্যকেও এ ব্যপারে অবহিত করি। নিজে সুস্থ থাকি ও অন্যকেও সুস্থ রাখি।

এই পোস্ট সম্পর্কে কোনো প্রশ্ন, অভিযোগ, মতামত বা পরামর্শ থাকলে নিচে কমেন্ট করুন। আমরা সকল কমেন্টের উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করি। সকল আপডেট সবার আগে পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন। আর টুইটারে ফলো করুন।

Sponsored by TrickBlogBD

ফ্রী মোবাইল রিচার্জ, বিভিন্ন এক্সক্লুসিভ টিপস & ট্রিক্স পেতে ও মতামত জানাতে আমাদের ফেসবুক গ্রুপে জয়েন করুন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Scroll to Top