ফেসবুক আইডি নিরাপদ রাখার উপায়

প্রায়ই আমাদের ফেসবুক একাউন্ট হ্যাক হয়ে যায়। ব্যক্তিগত তথ্য চুরি হয়। আমরা পড়ে যাই মহা ঝমেলায়।

ফেসবুকের নিরাপত্তা

কেউ কেউ ইদানিং রাজনৈতিক ঝামেলায়ও ঝড়িয়ে পড়েছেন। কিন্তু আমরা একটু সতর্ক হলেই এসব ঝামেলা থেকে বেঁচে যেতে পারি।

এজন্য আমাদের কিছু নিয়ম মেনে চলতে হবে। এই নিয়মগুলো মেনে চললে আমরা ফেসবুকে নিরাপদ থাকতে পারবো। চলুন জেনে নেই, ফেসবুক আইডি নিরাপদ রাখার উপায়।

টু স্টেপ ভেরিফিকেশন চালু করুন

আপনি ফেসবুক একাউন্ট খোলার সময় কিছু তথ্য দিয়েছিলেন। যেমনঃ ইমেইল/ফোন নম্বর,পাসওয়ার্ড ইত্যাদি। আবার লগিন করার জন্যও ইমেইল এবংং পাসওয়ার্ড দরকার হয়।

অনেকেরই ইমেইল নেই। ইমেইল আইডি খোলার নিয়মকানুন জেনে নিন

এর কোন একটা ভূলে গেলে লগিন করাও সম্ভব হয়না। কিন্তু বর্তমানে প্রযুক্তি অনেক উন্নত। বেড়েছে হ্যাকারদের দৌরাত্ব।

তাই অনেকে না জেনেই হ্যাকারদের কবলে পড়ছেন। হ্যাকাররা কৌশলে হাতিয়ে নিচ্ছে অনেকের পাসওয়ার্ড।

আর তারা অনুমতি ছাড়াই ঢুকে পড়ছে অন্যের একাউন্টে। এক্ষেত্রে তার দরকার হচ্ছে শুধু দুইটা জিনিস। ১. আপনার ইমেইল ঠিকানা ২. পাসওয়ার্ড।

কিন্তু আপনি চাইলেই এই হ্যাকারদের হাত থেকে বেঁচে যেতে পারেন। আর নিরাপদ রাখতে পারেন আপনার ফেসবুক একাউন্ট।

আপনি যদি টু স্টেপ ভেরিফিকেশন চালু করেন। তাহলে লগিন করার জন্য দরকার হবে ৩ টা জিনিস।

১. ইমেইল ঠিকানা ২. একাউন্টের পাসওয়ার্ড ৩. মোবাইলে আসা সময়িক পাসওয়ার্ড।

যখন হ্যাকার আপিনার ইমেইল আর পাসওয়ার্ড দিয়ে লগিন করবে। তখন আপনার মোবাইলে একটা সাময়িক পাসওয়ার্ড যাবে।

আরো পড়ুনঃ ফেসবুক একাউন্ট খোলার নিয়ম

ঐ পাসওয়ার্ড না দিতে পারলে একাউন্টে লগিন হবেনা। কিন্তু হ্যাকার আপনার মোবাইল পাবেনা। আর এই সাময়িক পাসওয়ার্ডও পাবেনা।

আর তাই সে আপনার ফেসবুক একাউন্টে লগিন করতে পারবেনা।

কীভাবে টু স্টেপ ভেরিফিকেশন চালু করতে হয়? এব্যাপারে আমি পরে পোস্ট করবো।

অপরিচিত ব্যক্তির পাঠানো লিংকে ক্লিক করবেন না

অনেক সময় অনেকেই আমাদেরকে ফেসবুকে বিভিন্ন লিংক পাঠায়। ভূলেও এই লিংগুলোতে ক্লিক করা যাবেনা।

এগুলা হ্যাকিং লিংকও হতে পারে। আর সেটা হলে আপনি খুব বিড় ধরণের বিপদে পড়বেন। তাই সর্বদা এইসব লিংক এড়িয়ে চলুন।

ফেসবুক লগিন নটিফিকেশন অপশন চালু রাখুন

লগিন নটিফিকেশন অপিশনটি চালু করে রাখলে বাড়তি সুবিধা পাবেন। যখনি কেউ আপনার ফেসবুক একাউন্টে লগিন করবে। তখনই আপনার ইমেইল ও মোবাইলে নটিফিকেশন চলে যাবে।

আপনি তৎক্ষনাৎ আপনার পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করে ফেলবেন। আর Sign Out from ither devices করে দিবেন। তাহলে হ্যাকার আপনার একাউন্টথেকে লগ আউট হয়ে যাবে। আর লগিন করতে পারবেনা।

আরো পড়তে পারেনঃ ফেসবুকে বেশি লাইক পাওয়ার উপায়

ট্রাস্টেড কন্টাক্ট যোগ করুন

ফেসবুক একাউন্ট নিরাপদ রাখার আরো ভালো উপায় ট্রাস্টেড কন্টাক্ট। ফেসবুক একাউন্টে ট্রাস্টেড কন্টাক্ট যোগ করে রাখলে একাউন্ট যেকোন সময় উদ্ধার করা যায়।

এক্ষেত্রে আপনি যখনি ফেসবুক একাউন্টে লগিন করতে না পারবেন। তখনই ট্রাস্টেড কন্টাক্টের সহায়তা নিতে পারেন।

আরো পড়তে পারেনঃ মোবাইল দিয়ে ফেসবুক আইডি ডিলিট করার নিয়ম

আপনার যোগ করা বন্ধুদের কাছে আলাদা আলাদা পিন কোড যাবে।

তাদের থেকে পিন কোড নিয়ে সাবমিট দিলেই আপনি নতুন পাসওয়ার্ড সেট করতে পারবেন।

এই নিয়মগুলো মেনে চললে আপনি ফেসবুকে নিরাপদ থাকতে পারবেন।

আরো পড়তে পারেনঃ ১০০+ মেয়েদের ফেসবুক প্রোফাইল নাম

Leave a Comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.